বাড়ি > ঘরে বাইরে > অতিমারী আবহে বাদল অধিবেশন শুরুর এক সপ্তাহ আগে চালু সংসদ কর্মীদের কোভিড স্ক্রিনিং
কড়া স্বাস্থ্য নিরাপত্তাবিধি মেনে শুরু হতে চলেছে সংসদের বাদল অধিবেশন।
কড়া স্বাস্থ্য নিরাপত্তাবিধি মেনে শুরু হতে চলেছে সংসদের বাদল অধিবেশন।

অতিমারী আবহে বাদল অধিবেশন শুরুর এক সপ্তাহ আগে চালু সংসদ কর্মীদের কোভিড স্ক্রিনিং

  • প্রায় ১,০০০ কর্মীর স্ক্রিনিং হবে বলে জানা গিয়েছে। স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় কড়াকড়ি মেনে চলায় জোর দিয়েছে প্রশাসন।

সাত দিন পরে শুরু হচ্ছে সংসদের বাদল অধিবেশন। তার আগে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে সংসদ কর্মীদের মেডিক্যাল স্ক্রিনিং প্রক্রিয়া। প্রায় ১,০০০ কর্মীর স্ক্রিনিং হবে বলে জানা গিয়েছে।

আরও জানা গিয়েছে, শুধু সেই সমস্ত কর্মীদেরই স্ক্রিনিং করা হচ্ছে, যাঁরা Covid-19 পরিস্থিতির মাঝে সংসদের বাদল অধিবেশনে উপস্থিত থাকবেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী, আঁটোসাঁটো ১৮ দিনের অধিবেশনে থাকছে না কোনও সপ্তাহান্তের ছুটি, প্রশ্নোত্তর পর্ব এবং সম্ভবত কোনও ব্যক্তিগত সদস্যের বিল পেশ প্রক্রিয়া।

১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত প্রতিদিন সংসদের উভয় কক্ষে সকাল ৯টা থেকে অধিবেশন শুরু হবে।

ভিভিআইপি এলাকায় গতিবিধির কারণে সংসদের প্রত্যেক কর্মী ও আধিকারিকের জন্য কোভিড পরীক্ষা আবশ্যিক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ছবি তোলার উপরে নিষেধাজ্ঞা এবং কোভিড পরীক্ষা প্রক্রিয়া সম্পর্কে গোপনীয়তা বজায় রাখার নির্দেশও জারি করা হয়েছে। 

ক্রমবর্ধমান কোভিড অতিমারী আবহে এই প্রথম সংসদের অধিবেশন বসতে চলেছে, তাই স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় কড়াকড়ি মেনে চলায় জোর দিয়েছে প্রশাসন। সংসদ কক্ষের ভিতরে সদস্যদের বসার আসন বণ্টনে পরিবর্তন আনা হয়েছে, মেনে চলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ববিধি। এয়ার কন্ডিশনিং ব্যবস্থায় আলট্রাভায়োলেট জীবাণুনাশক ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। অধিবেশনের সরাসরি সম্প্রচারের জন্য থাকছে ১০টি ডিসপ্লে স্ক্রিন, দুই কক্ষের মধ্যে বিশেষ কেবল ভিত্তিক যোগাযোগ ব্যবস্থা ইত্যাদির মতো বিষয়। 

সংসদে ভাষণের আগে আগে লোক সভার সাংসদদের বাড়িতে কোভিড পরীক্ষার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাঁদের কেন্দ্রে আরটিপিসিআর টেস্টও বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অন্য সময় অধিবেশন চলাকালীন বিপুল জনসমাগম হলেও অতিমারী পরিস্থিতিতে সংসদ চত্বরে বহিরাগত অতিথিদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নামমাত্র উপস্থিতি থাকবে সংবাদমাধ্যম কর্মী ও সংসদীয় কর্মীদেরও।

বন্ধ করুন