বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ওয়াকফ অ্যাক্টকে আক্রমণ করার জন্য় ধর্মকে টেনে আনবেন না, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট
ওয়াকফ অ্যাক্ট প্রসঙ্গে বিশেষ রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট। প্রতীকী ছবি 

ওয়াকফ অ্যাক্টকে আক্রমণ করার জন্য় ধর্মকে টেনে আনবেন না, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট

  • বিচারপতি হৃষিকেশ রায় জানিয়েছেন, আমরা ভীষণ আঘাত পেয়েছি। আপনি এই ব্যাপারে ধর্মকে টেনে আনলেন কেন? এদিকে পিটিশন দাখিল করে বলা হয়েছে, এই ধরনের উদ্যোগ সবসময় ধর্মনিরপেক্ষ হওয়া দরকার।

আব্রাহাম থমাস

ওয়াকাফ অ্যাক্টকে একপেশে বলে প্রশ্ন করে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করা হয়েছিল। এনিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তরফে জানানো হয়েছে এই ধরনের পিটিশন যন্ত্রণাদায়ক। বিচারপতি কেএম যোশেফের বেঞ্চ জানিয়েছে, আপনি ধর্ম পর্যন্ত আপনার চ্যালেঞ্জকে নামিয়ে এনেছেন এতে আমি খুব কষ্ট পেয়েছি। আমাদের এর উর্ধে উঠতে হবে।

১৯৫৪ সালে প্রথম ওয়াকফ অ্যাক্টের গোড়াপত্তন হয়। এরপর ১৯৯৫ সালে এটি কার্যকরী হয়। মূলত ওয়াকফ সম্পত্তির সুরক্ষার স্বার্থে তৈরি হয়েছিল এই আইন। তবে মূলত মুসলিমদের নিয়েই এই ওয়াকফ বোর্ড তৈরি হয়। রাজ্যস্তরে ট্রাইবুনালের জন্য জুডিশিয়াল অফিসারও রাখা হয় পরবর্তী সময়ে। একজন জুডিশিয়াল আধিকারিক ও আরও দুজন সদস্যকেও এজন্য় নিয়োজিত করা হয়। তবে তাঁদের যে আদৌ মুসলিম হতে হবে এমনটা নয়।

বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী অশ্বিনী কুমার উপাধ্যায় এনিয়ে পিটিশন দিয়ে জানিয়েছিলেন, একই ধরনের ব্যবস্থা হিন্দুদের সম্পত্তি রক্ষার জন্য়ও করা দরকার।

বিচারপতি হৃষিকেশ রায় জানিয়েছেন, আমরা ভীষণ আঘাত পেয়েছি। আপনি এই ব্যাপারে ধর্মকে টেনে আনলেন কেন? এদিকে পিটিশন দাখিল করে বলা হয়েছে, এই ধরনের উদ্যোগ সবসময় ধর্মনিরপেক্ষ হওয়া দরকার।

তবে বিচারপতিদের বেঞ্চ জানিয়েছে, ওয়াকফ অ্যাক্টের একটা প্রভিশন দেখান যেখানে সমতার বিরুদ্ধে কিছু করা হয়েছে। এরপর আদালতের তরফে জানানো হয়েছে হিন্দু সংস্থা পরিচালনার জন্য কেবলমাত্র হিন্দুরাই নিয়োজিত রয়েছেন। এমন নানা নজির রয়েছে। এটাও মাথায় রাখতে হবে।

বন্ধ করুন