বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এপ্রিল থেকে গাড়িতে ডুয়াল এয়ারব্যাগ আবশ্যিক, ঘোষণা করল কেন্দ্র
ফাইল চিত্র (File Photo) (File Photo)
ফাইল চিত্র (File Photo) (File Photo)

এপ্রিল থেকে গাড়িতে ডুয়াল এয়ারব্যাগ আবশ্যিক, ঘোষণা করল কেন্দ্র

এর আগে ২০১৯ সালে জুলাই মাসে চালকের আসনে এয়ারব্যাগ থাকা বাধ্যতামূলক করে সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক। এবার পাশের যাত্রীর আসনেরও বাড়ানো হল সুরক্ষাবিধি।

চালকের আসন তো বটেই। এয়ারব্যাগ থাকতে হবে পাশের আসনের যাত্রীর জন্যও। শুক্রবার এই নীতি কবে থেকে লাগু হচ্ছে তা ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক।

গত বছর ডিসেম্বরেই নয়া সুরক্ষাবিধির ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র। তখনই জানানো হয়েছিল যে ২০২১ সালের এপ্রিল মাস থেকেই চালু হতে পারে এই নিয়ম। এবার সেই নিয়ম কবে থেকে চালু হচ্ছে তা পাকাপাকিভাবে ঘোষণা করল সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক।

আগামী ১ এপ্রিল থেকে প্রতিটি নতুন গাড়িতে সামনের দুটি সিটে এয়ারব্যাগ থাকা আবশ্যিক। তাছাড়া ৩১ অগস্ট থেকে পুরনো মডেলগুলিতেও বাধ্যতামূলক হল ডুয়াল এয়ারব্যাগ।

এর আগে ২০১৯ সালে জুলাই মাসে চালকের আসনে এয়ারব্যাগ থাকা বাধ্যতামূলক করে সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক। এবার পাশের যাত্রীর আসনেরও বাড়ানো হল সুরক্ষাবিধি। সাধারণ মানুষের মত, গাড়ি নির্মাতা সংস্থা, গাড়ির ক্র্যাশ টেস্ট-এর সমীক্ষা ও সুপ্রিম কোর্টের পরামর্শ মেনেই আসছে নয়া নীতি।

নয়া নিয়মে ৫,০০০ থেকে ৭,০০০ টাকা বাড়তে পারে নতুন গাড়ির দাম। তবে, এই দাম যাত্রীর জীবনের মূল্যের কাছে কণামাত্র। যে কোনও সংঘাতের ঘটনায় এয়ারব্যাগ আঘাতের পরিমাণ অনেকটাই কমাতে সাহায্য করে। গুরুত্বপূর্ণ অংশ, যেমন মাথা, বুক ইত্যাদিতে আঘাত লাগার সম্ভাবনা কমে।

ডিসেম্বরে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানায় ফেডারেশন অফ অটোমোবাইল ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন (FADA)। তাঁদের মতে নয়া নীতি প্রণয়নের ক্ষেত্রে গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির যতটা সম্ভব দাম অপরিবর্তিত রাখা উচিত।

কেন্দ্রের নয়া সিদ্ধান্তে অবশেষে আন্তর্জাতিক মানের সুরক্ষাবিধির কাছাকাছি পৌছল ভারত। ডুয়াল এয়ারব্যাগের নীতিকে তাই স্বাগত জানিয়েছে গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি।

 

বন্ধ করুন