বাড়ি > ঘরে বাইরে > গালওয়ানে যেই ব্রিজের নির্মাণ বন্ধ করতে চিনের রক্তচক্ষু, সেটির কাজ সম্পন্ন হল
গালওয়ান উপত্যকা (MINT_PRINT)
গালওয়ান উপত্যকা (MINT_PRINT)

গালওয়ানে যেই ব্রিজের নির্মাণ বন্ধ করতে চিনের রক্তচক্ষু, সেটির কাজ সম্পন্ন হল

কাজ থামবে না, চিন যাই করুক, সাফ বার্তা ভারতের। 

শিশির গুপ্ত

 

পূর্ব লাদাখে গালওয়ান নদীর ওপর সেনার ইঞ্জিনিয়াররা একটি ৬০ মিটার ব্রিজ বানাতে সক্ষম হয়েছে, যেটা ভারতকে সাহায্য করবে এই সেক্টরে নিজের অবস্থান শক্ত করতে। 

সহজেই ইনফ্যান্ট্রি হিমশীতল গালওয়ান নদী পেরিয়ে যেতে পারবে এই নয়া ব্রিজটির জন্য। এছা়ড়াও দারবুক থেকে দৌলত বাগ ওল্ডি অবধি বিস্তৃত ২৫৫ কিমির রাস্তাকে রক্ষা করবে এই ব্রিজ। চিনের সেনার রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে সেনার ইঞ্জিনিয়াররা এই ব্রিজটি বানাতে সক্ষম হয়েছে। 

ভারতীয় সেনাকর্তারা জানিয়েছেন আচমকা ওই সেক্টরে চিনের গতিবিধি বৃদ্ধির একটি বড় কারণ ওই ব্রিজের নির্মাণ। চাপের মুখে পড় এখন পুরো গালওয়ান উপত্যকাটাই চিনের বলে দাবি করছে ওই দেশের বিদেশমন্ত্রক। বহু বছর ধরে তারা সেখানে প্যাট্রলিংয়ের কাজ করেছেন বলে চিনের দাবি। 

বৃহস্পতিবার ব্রিজটির নির্মাণ শেষ হয়েছে। এক বরিষ্ঠ সেনাকর্তা জানিয়েছেন যে ফর্মেশন ইঞ্জিনিয়ার ও বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশন নিজের কাজ চালিয়ে যাবে। চিনের সেনার কোনও অভিসন্ধি সার্থক হবে না। 

প্রসঙ্গত প্যাট্রলিং পয়েন্ট ১৪, যেটা বেইলি ব্রিজ থেকে আরও দুই কিলোমিটার পূর্বে, সেখানেই হয়েছিল ১৫ জুনের সংঘর্ষ যাতে কুড়িজন ভারতীয় সৈনিক আহত হন। ওর কাছেই গালওয়ান নদী শ্যোক নদীর সঙ্গে মিশেছে। সেখানে আছে ভারতীয় সেনার একটি ক্যাম্প। 

পুরো গালওয়ান উপত্যকাকে নিজেদের বলে শ্যোক নদীর ওপর ভারতের অধিকার খর্ব করতে চাইছে চিন। প্রযোজনে যাতে দৌলত বেগ ওল্ডিকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে তার আগের শেষ গ্রাম মুরগো দিয়ে সরাসরি পাকিস্তানে চলে যাওয়া যায়। এটাই পরকল্পনা চিনের বলে জানা যাচ্ছে। 

কংক্রিটের এই ব্রিজ ভারতকে সেনা জড়ো করা ও প্রত্যন্ত এলাকায় পৌঁছানোর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর আগে ফুট ব্রিজ ছিল। তার জায় কংক্রিটের ব্রিজ হওয়ার জিপ নিয়ে চলাচল করতে পারবে ভারতীয় সেনা। কোনও খারাপ পরিস্থিতিতে ভারতের কাছে আরও বিকল্প থাকবে। 

 

বন্ধ করুন