বাড়ি > ঘরে বাইরে > পাওয়া গিয়েছে করোনায় মৃত্যু ঠেকানোর ওষুধ, দাবি অক্সফোর্ডের গবেষণায়
ইয়েমেনের সানা শহরে হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগে ভরতি এই মরণাপন্ন কোভিড আক্রান্ত রোগীকে রবিবার ডেক্সামিথ্যাসোন প্রয়োগের পরে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে। প্রাণনাশের বিপদ কেটেছে, জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ছবি: এপি। (AP)
ইয়েমেনের সানা শহরে হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগে ভরতি এই মরণাপন্ন কোভিড আক্রান্ত রোগীকে রবিবার ডেক্সামিথ্যাসোন প্রয়োগের পরে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে। প্রাণনাশের বিপদ কেটেছে, জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ছবি: এপি। (AP)

পাওয়া গিয়েছে করোনায় মৃত্যু ঠেকানোর ওষুধ, দাবি অক্সফোর্ডের গবেষণায়

  • অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি, প্রতি ৮ জন ভেন্টিলেশনে থাকা রোগীর মধ্যে এই ওষুধের সাহায্যে একজনের প্রাণরক্ষা করা সম্ভব।

করোনায় মৃত্যু রোধ করার নতুন ওষুধ আবিষ্কারের দাবি জানালেন ইংল্যান্ডের গবেষকরা। তাঁদের মতে, সঙ্কটজনক করোনা আক্রান্তদের নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করতে সফল হয়েছে ডেক্সামিথ্যাসোন (dexamethasone) নামে এই স্টেরয়েড।

মঙ্গলবার গবেষণার ফল প্রকাশিত হয়েছে এবং বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, খুব তাড়াতাড়ি  তা সাধারণের জন্য প্রকাশ করা হবে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, সাধারণ কোভিড চিকিৎসার আওতায় থাকা ৪,৩২১ রোগীর তুলনায় এই স্টেরয়েড প্রয়োগ করা ২,১০৪ জন রোগীর শারীরিক পরিস্থিতি অনেক উন্নত হয়েছে।

স্টেরয়েডটি এই রোগীদের খাওয়ানো অথবা আইভি পদ্ধতিতে প্রয়োগের পরে দেখা গিয়েছে, তার জেরে কৃত্রিম উপায়ে শ্বাস নেওয়া রোগীদের ৩৫% এর মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা কমেছে। যে সমস্ত রোগীদের অক্সিজেন দিতে হচ্ছিল, তাঁদের মধ্যে স্টেরয়েড প্রয়োগের ফলে মৃত্যুর আশঙ্কা ২০% কমেছে। তবে মনে করা হচ্ছে, আশঙ্কাজনক রোগী ছাড়া এই ওষুধ ফলদায়ী নয়। 

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি, প্রতি ৮ জন ভেন্টিলেশনে থাকা রোগীর মধ্যে এই ওষুধের সাহায্যে একজনের প্রাণরক্ষা করা সম্ভব।

গবেষণাদলের অন্যতম সদস্য অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক পিটার হরবি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘যে সমস্ত রোগীকে অক্সিজেন দেওয়া জরুরি ছিল, তাঁদের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা কমাতে এই ওষুধের উপকারিতা প্রমাণ হয়েছে। এই কারণে এই রোগীদের সারিয়ে তুলতে ডেক্সামিথ্যাসোন প্রয়োগ জরুরি। এই স্টেরয়েড সস্তা, সহজলভ্য এবং বিশ্বজুড়ে আশঙ্কাজনক কোভিড রোগীদের ক্ষেত্রে অবিলম্বে প্রয়োগ করা সম্ভব।’

প্রসঙ্গত, এই গবেষণাতেই চলতি মাসের গোড়ায় ধরা পড়ে যে ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন করোনা রোধে আর কাজে দিচ্ছে না।

গবেষণায় শামিল হয়েছেন ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ার্ল্যান্ডের ১১,০০০ এর বেশি রোগী। 

বন্ধ করুন