বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পাঠানকোটে সেনাঘাঁটির কাছে গ্রেনেড বিস্ফোরণে খতিয়ে দেখা হচ্ছে CCTV ফুটেজ
পাঠানকোটের ঘটনার পর জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়কে কড়া নজরদারি। (PTI)
পাঠানকোটের ঘটনার পর জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়কে কড়া নজরদারি। (PTI)

পাঠানকোটে সেনাঘাঁটির কাছে গ্রেনেড বিস্ফোরণে খতিয়ে দেখা হচ্ছে CCTV ফুটেজ

  • ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে পাঠানকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছিল জঙ্গিরা।

গ্রেনেড বিস্ফোরণ হল পাঠানকোটে ভারতীয় সেনার ঘাঁটির গেটের সামনে। সূত্রের খবর, বিস্ফোরণের ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর মেলেনি। আপাতত এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার ভোররাতে পাঠানকোটের ধীরাপলের কাছে ত্রিবেণী গেটের কাছে গ্রেনেড বিস্ফোরণ হয়। কয়েকজন অজ্ঞাতপরিচয় বাইকআরোহী সেনার ঘাঁটির সামনে গ্রেনেড ছুড়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে গ্রেনেডের অংশবিশেষ উদ্ধার করা হয়েছে। সংগ্রহ করা হয়েছে এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ। আপাতত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থলে এসেছেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। পাঠানকোটের সিনিয়র পুলিশ সুপার (এসএসপি) সুরেন্দ্র লাম্বা বলেছেন, ‘পাঠানকোটের সেনাঘাঁটির ত্রিবেণী গেটের সামনে গ্রেনেড বিস্ফোরণ হয়েছে। তদন্ত চলছে। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হবে।’

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে পাঠানকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছিল জঙ্গিরা। মৃত্যু হয়েছিল ভারতীয় বাহিনীর কয়েকজন সদস্যের। তারপর চলতি বছরে একাধিক ভারতীয় বাহিনীর ঘাঁটিতে নিশানা করা হয়েছে। সেই পরিস্থিতিতে বাড়তি সতর্কতা জারি করা হয়েছে পাঠানকোট এবং পাঠানকোট সংলগ্ন জেলায়। চলছে বাড়তি নজরদারি। বিভিন্ন জায়গায় গাড়িতে নজরদারি চালানো হচ্ছে। পঞ্জাবের উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুখজিন্দর সিং রানধাওয়া জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে অমৃতসর সীমান্ত এবং জলন্ধর জোনের শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। খতিয়ে দেখবেন রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং রাজ্যের সুরক্ষা ব্যবস্থা। 

বন্ধ করুন