বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গান পছন্দ না হওয়ায় বিয়ের হইচইয়ের মাঝে অতিথিকে গুলি বরের! এরপর ?
গান পছন্দ না হওয়ায় বিয়ের হইচইয়ের মাঝে অতিথিকে গুলি বরের! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
গান পছন্দ না হওয়ায় বিয়ের হইচইয়ের মাঝে অতিথিকে গুলি বরের! (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

গান পছন্দ না হওয়ায় বিয়ের হইচইয়ের মাঝে অতিথিকে গুলি বরের! এরপর ?

  • গোটা ঘটনা নিয়ে তুমুল হট্টোগোলের মাঝে চলে গুলি। দেখা যায় বর ইফতিকার চালিয়েছে গুলি। আর তাতে মুহূর্তে রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বিয়েবাড়িতে আসা অতিথি জাফর আলি।

বিয়ে ঘিরে যে হইচই ছিল তা মুহূর্তে রক্তাক্ত পরিণতির দিকে এগিয়ে যায়। হইচইয়ের মাঝে আচমকা থমকে যায় সব কিছু। বরের হাতের বন্দুক থেকে ছোঁড়া গুলিতে নিহত হন এক অতিথি। গোটা ঘটনার সূত্রপাত এক গানকে ঘিরে। এই ঘটনা উত্তরপ্রদেশের মুজাফ্ফরনগরের। ঘটনার আকস্মিকতায় স্তম্ভিত সকলে।

ঘটনার পরম্পরা কোনও ফিল্মের দৃশ্যের থেকে কম নয়। চলছিল বিয়ের প্রসেশন। বর আসছিলেন ঘোড়ায়। তাঁকে ঘিরে হইচইকে মেতে ওঠেন সকলে। প্রসেশনে চলছিল নাচ। ডিজের গানের ছন্দে চলছিল নাচ। আচমকাই কয়েকজন বলেন তাঁদের ওই গান পছন্দ হচ্ছে না। এই নিয়ে শুরু হয় মতবিরোধ। যা পরে হাতাহাতির দিকে যায়। যা পরে সংঘর্ষের রূপ নেয়। গোটা ঘটনা নিয়ে তুমুল হট্টোগোলের মাঝে চলে গুলি। দেখা যায় বর ইফতিকার চালিয়েছে গুলি। আর তাতে মুহূর্তে রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বিয়েবাড়িতে আসা অতিথি জাফর আলি। শিশুকে নিয়ে একা ট্রেন সফরত মহিলাদের বিশেষ সুবিধা! ভারতীয় রেলে নয়া পরিষেবা শুরু

এই ঘটনার কথা জানিয়েছে পুলিশ। এলাকার অ্যাসিসটেন্ট সুপারিন্টেডেন্ট অতুল শ্রীবাস্তব একথা জানিয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, এরপর অসুস্থ জাফর আলিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এরপর পুলিশের দ্বারস্থ হয় নিহতের পরিবার। মুহূর্তে সমস্ত তথ্য জেনে পুলিশ গ্রেফতার করে বিয়ের বর ইফতিকারকে। গোটা গ্রাম জুড়ে কড়া নিরাপত্তা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন