বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কোভিড–বিধি না মানায় চার যাত্রীকে নিরাপত্তারক্ষীর হাতে তুলে দিল অ্যালিয়ান্স এয়ার
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

কোভিড–বিধি না মানায় চার যাত্রীকে নিরাপত্তারক্ষীর হাতে তুলে দিল অ্যালিয়ান্স এয়ার

  • সরকারের নিয়মবিধি মানেননি এই চারজন যাত্রী। বিমান থেকে নামিয়ে না দেওয়া হলেও চার যাত্রীর উড়ানে নিষেধাজ্ঞা জারি করল এয়ার ইন্ডিয়ার শাখা সংস্থা অ্যালিয়ান্স এয়ার।

বিমানটি জম্মু থেকে দিল্লি যাচ্ছিল। কিন্তু সেই বিমান থেকে ওই চারজন যাত্রীকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হল। দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতেই কেন্দ্রের পক্ষ থেকে নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছিল যে, মাস্ক না পরলে বা অন্য কোনও করোনাবিধি না মানলে যাত্রীদের বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়া হবে। সরকারের নিয়মবিধি মানেননি এই চারজন যাত্রী। বিমান থেকে নামিয়ে না দেওয়া হলেও দিল্লিতে নামার পর তাঁদের নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

ডিরেক্টর জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন সূত্রে খবর, গত ১৬ মার্চ জম্মু থেকে দিল্লিগামী একটি বিমানে চার যাত্রী মাস্ক পরতে অস্বীকার করেন। বারবার বলা সত্ত্বেও তাঁরা কোনও কথায় কর্নপাত করেননি। আর অভব্য আচরণ করতে থাকেন তাঁরা। বিমান দিল্লি পৌঁছতেই ওই চার যাত্রীকে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। কোভিড বিধিভঙ্গের অভিযোগে যাত্রীদের নাম নো–ফ্লাই লিস্টে তুলে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ আগামী তিন মাস ওই যাত্রীরা সংশ্লিষ্ট সংস্থার কোনও বিমানে উঠতে পারবেন না।

সরকারের পক্ষ থেকে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে কড়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, যাঁরা কোভিড বিধি মানবেন না তাঁদের নিরাপত্তা সংস্থার হাতে তুলে দিতে হবে। কলকাতা থেকে দিল্লিগামী এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে বহু যাত্রী মাস্ক না পরার বিষয়টি তুলে ধরে দিল্লি হাইকোর্ট। এরপরই কেন্দ্রীয় অসামরিক উড়ান কর্তৃপক্ষের তরফে একটি নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়, ‘‌বিমানে কোনও যাত্রীকে বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও যদি মাস্ক না পরেন, তাহলে তাঁকে বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়া হবে। যদি কোনও যাত্রী করোনাবিধি অনুসরণ করতে না চান, তাঁদের নিয়মভঙ্গকারী যাত্রী হিসাবেই গণ্য করা হবে। আর তিন মাসের জন্য নো–ফ্লাই লিস্টে তাঁদের নাম যুক্ত করা হবে।’‌

বন্ধ করুন