বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নাকে গুঁজে তুলো - ধারের টাকা না দিতে ফেসুবকে মরে যাওয়ার নাটক মহিলার!

নাকে গুঁজে তুলো - ধারের টাকা না দিতে ফেসুবকে মরে যাওয়ার নাটক মহিলার!

ফাইল ছবি: ফেসবুক (Facebook)

ঋণের বোঝা এড়াতে মৃত্যুর নাটক করলেন এক মহিলা। রীতিমতো নাকে তুলো গুঁজে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিও ছড়ালেন। 'মৃতদেহে'র ছবি দেখিয়ে প্রমাণ করতে চাইলেন যে তিনি আর ইহা জগতে নেই। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষ হল না।

কাদম্বিনী মরিয়া প্রমাণ করিল, সে মরে নাই। আর ইন্দোনেশিয়ার এক মহিলা না মরিয়াই প্রমাণ করিল, সে মরিয়া গিয়াছে।

না, হেঁয়ালি করছি না। ঋণের বোঝা এড়াতে মৃত্যুর নাটক করলেন এক মহিলা। রীতিমতো নাকে তুলো গুঁজে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিও ছড়ালেন। 'মৃতদেহে'-র ছবি দেখিয়ে প্রমাণ করতে চাইলেন যে তিনি আর ইহজগতে নেই। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হল না।

লিজা দেউই প্রমিতা নামের ইন্দোনেশিয়ার ওই মহিলার প্রায় ২২ হাজার টাকার ঋণ ছিল। এদিকে কিছুতেই তা শোধ করতে পারছিলেন না। পাওনাদার মায়া গুনাওয়ান তাঁকে রোজ তাগাদা দিতেন। এদিকে কিছুতেই টাকা শোধ করতে পারছিলেন না লিজা। আরও কিছুটা সময় চেয়ে নেন তিনি। সেই মতো তাঁকে আরও কিছুদিন সময়ও দেওয়া হয়। কিন্তু তাতেও খুব একটা লাভ হয়নি। ধার মেটানোর মতো টাকা কিছুতেই জোগাড় করতে পারেননি লিজা। এদিকে ক্রমেই ঋণ মেটানোর সময়সীমা এগিয়ে আসছিল। এমন পরিস্থিতিতে এক আজব কৌশল বেছে নেন। এমন এক কাজ যা কল্পনা করাও অসম্ভব। আরও পড়ুন: দেওয়াল নেই, নেই দরজাও! এই শৌচালয় গড়তেই ১০ লক্ষ টাকা খরচ

১১ ডিসেম্বর ফেসবুকে একটি পোস্ট করা হয়। তাতে দাবি করা হয়, লিজার মৃত্যু হয়েছে। সাদা কাপড়ে জড়ানো, নাকে তুলো দেওয়া। মর্মান্তিক! ঋণ প্রদানকারী মায়া গুনাওয়ান হতবাক হয়ে যান। এত অল্প বয়সে যে তিনি গত হবেন তা তিনি ভাবতেও পারছিলেন না। কিছুটা খারাপই লাগছিল তাঁর।

<p>ফাইল ছবি: ফেসবুক</p>

ফাইল ছবি: ফেসবুক

(Facebook)

এরপর লিজার মেয়ের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি। সমবেদনা জানান। এরপর সৌজন্যের খাতিয়ে তাঁর শেষকৃত্যের বিষয়ে জানতে চান। কিন্তু সেটা করতে গিয়েই ঝুলি থেকে বিড়াল বেরিয়ে পড়ে।

শেষকৃত্যের গল্পের স্ক্রিপ্ট খুবই কাঁচা ছিল। 'মৃতে'র মেয়ে দাবি করেন, তাঁর মাকে বাড়ি থেকে অনেক দূরের একটি স্থানে সমাধিস্থ করা হবে। আর এতেই কেমন জানি সন্দেহ হয় ঋণদাতার। বাড়ি থেকে এত দূরে নিয়ে গিয়ে কেন শেষকৃত্য হবে?

এরপরেই ফের মায়ার মৃত্যুর ফেসবুক পোস্ট ঘেঁটে দেখেন তিনি। আর তখনই খেয়াল করেন, মায়ার দেহ নিয়ে যাওয়ার যে ছবি, সেটা একেবারে ভুয়ো! পোস্ট করা ছবিগুলির মধ্যে, দু'টিতে দেখা যাচ্ছে, স্ট্রেচারে করে, সাদা কাপড়ে ঢাকা দেহ নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সম্ভবত কোনও হাসপাতালে।

কিন্তু একটু ভালো করে দেখলেই বোঝা যাবে, সেগুলি নকল। ইন্টারনেটে অন্য কোনও ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা। আর তাই দিয়েই ব্যাপারটা ধরে পেরে যান মায়া।

এরপর তিনি ফের ওই মহিলার বাড়িতে যান এবং তাঁর মেয়েকে চেপে ধরেন। চাপের মুখে সে সব কথা স্বীকার করে নেয়। তিনি জানান, ঋণের বোঝা এড়াতেই এই মৃত্যুর গল্প সাজিয়েছেন তারা মা। আরও পড়ুন: Digha Marine Drive Video: দিঘা মেরিন ড্রাইভের অসাধারণ ড্রোন ভিডিয়ো!

মা কোথায়? আপাতত কোথাও গা-ঢাকা দিয়েছেন 'মৃত' লিজা। ঋণ শোধ করার টাকা জোগাড় করে, তবেই মনে হয় ফিরবেন 'ইহলোকে'!

ঘরে বাইরে খবর
বন্ধ করুন

Latest News

ঋত্বিক ঘটকের ছাত্র ছিলেন, কলকাতায় প্রয়াত আর্টহাউস ছবির পথিকৃৎ কুমার সাহানি Optical Illusion: এই ছবিতে রানিকে খুঁজে বের করা সহজ নয়! আপনি পারবেন ৫ সেকেন্ডে? IPL শুধু ক্রিকেট নয়… সমর্থকদের সামনে নামতে মুখি রয়েছেন DC অধিনায়ক পুকুরে জাল ফেলতেই উঠে এল ১ কেজি ওজনের ইলিশ ‘তুমি সব অ্যাঙ্গেল থেকেই…’! প্রশংসা মহিলা প্রতিযোগীর, লজ্জায় গাল লাল সৌরভের সন্দেশাখালিতে বিক্ষোভে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ, মিনাখাঁ থেকে গ্রেফতার ISF নেত্রী ৮ না ৯ মার্চ কবে মহাশিবরাত্রি? জেনে নিন সঠিক তারিখ ও পুজো বিধি এক আঙুলের চেয়েও ছোট 'ওয়াশিং মেশিন', কাজ করছে একই নিয়মে! কিনবেন নাকি রবিতে শনির দশা সোনার রেটে, তিলোত্তমায় আজ হলুদ ধাতু বিকোচ্ছে কততে? সম্প্রীতি উড়ালপুলে দুর্ঘটনা, গার্ডরেলে ধাক্কা মেরে ছিটকে পড়ল বাইক, মৃত ২

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.