বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ITR Refund: এই ৫টি নিয়ম প্রত্যেকের জানা দরকার!
ফাইল ছবি: পিটিআই (PTI)

ITR Refund: এই ৫টি নিয়ম প্রত্যেকের জানা দরকার!

ITR Rules Everyone Should Know: আইটিআর রিফান্ড সংক্রান্ত এই ৫টি আয়কর নিয়ম সকলের জানা উচিত। আপনি এগুলির সম্পর্কে ওয়াকিবহাল তো? জেনে নিন এক নজরে।

ITR Refund Rules: সম্প্রতি ২০২২-২৩ অর্থবর্ষের জন্য আয়কর রিটার্ন (ITR) দাখিলের শেষ তারিখ গিয়েছে। যাঁরা ৩১শে জুলাই ২০২২ তারিখে বা তার আগে IT রিটার্ন দাখিল করেছেন, তাঁরা ইতিমধ্যেই রিফান্ড ফেরত পেয়ে গিয়েছেন। কারও কারও অবশ্য এখনও রিফান্ড আসা বাকি।

যে সমস্ত উপার্জনকারী ব্যক্তিরা নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে ITR ফাইল করতে পারেননি, তাঁরা এখনও ৩১শে ডিসেম্বর ২০২২ পর্যন্ত সময় পাবেন। তবে, সেক্ষেত্রে নির্দিষ্ট পেনাল্টি প্রযোজ্য হবে।

আইটিআর রিফান্ডের সুদ কীভাবে গণনা করা হয়? এ বিষয়ে সেবি রেজিস্টার্ড কর এবং বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞ জিতেন্দ্র সোলাঙ্কি বলেন, 'আইটিআর রিফান্ডের সুদ মাসিক ০.৫০%। আয়কর আইনের 234D ধারা অনুযায়ী করদাতাকে প্রদত্ত অতিরিক্ত রিফান্ডের উপর সুদ প্রযোজ্য।' তিনি জানান, এক মাসের যে কোনও ভগ্নাংশকে পূর্ণ এক মাস বলে গণ্য করা হবে। সুদ সেইভাবেই গণনা করা হবে।

আইটিআর রিফান্ড সংক্রান্ত ৫টি আয়কর নিয়ম, যা আপনার জানা উচিত:

১] এলিজিবিলিটি: নির্ধারিত তারিখের মধ্যে বা তার পরে আইটিআর ফাইল করা করদাতারাও আইটিআর রিফান্ড পাবেন।

২] ITR রিফান্ডের সুদ: যদি একজন করদাতা ৩১শে জুলাই ২০২২-এর মধ্যে ITR দাখিল করেন, তাহলে তিনি ১ এপ্রিল ২০২২ তারিখ থেকে ITR রিফান্ডের উপর সুদ পাবেন।

৩] ITR রিফান্ডের সুদের হার: প্রদত্ত নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে ITR ফাইলকারী করদাতারা, ITR রিফান্ডের অঙ্কের উপর ০.৫০% মাসিক সুদ পাবেন।

৪] আইটিআর রিফান্ডের উপর করের নিয়ম: আইটিআর রিফান্ডের পরিমাণ আসলে আয় হিসাবেই গণ্য। এই আয় করদাতা ইতিমধ্যেই সংশ্লিষ্ট অর্থবর্ষে রিপোর্ট করেছেন। সুতরাং, আইটিআর রিফান্ডের পরিমাণ অ-করযোগ্য। তবে, ব্যক্তির নিট বার্ষিক আয়ের সঙ্গে সুদের পরিমাণ যোগ করার পরে করদাতার উপর প্রযোজ্য আয়কর স্ল্যাব অনুসারে ITR রিফান্ডের উপর অর্জিত সুদ করযোগ্য।

৫] ITR রিফান্ডের সুদের গণনা: ITR রিফান্ডের সুদ গণনা করার সময়, মাসের যে কোনও ভগ্নাংশকে এক মাস হিসাবে গণ্য করা হবে। অন্যদিকে ১০০ টাকার কোনও ভগ্নাংশকে উপেক্ষা করা হবে।

উদাহরণস্বরূপ, যদি আমরা ৮,৪৮৯ টাকায় ৩ মাস ১০ দিনের জন্য সুদ গণনা করতে চাই, তাহলে সুদের ১০০-র যে কোনও ভগ্নাংশকে উপেক্ষা করতে হবে। সেই নিয়ম অনুযায়ী, ৮,৪৮৯ টাকা থেকে ৮৯ টাকা উপেক্ষা করব। বাকি পরিমাণ দাঁড়াবে ৮,৪০০ টাকা।

অন্যদিকে এই অতিরিক্ত ১০ দিনের সময়কালটাই পুরো মাস হিসাবে বিবেচিত হবে। তাই এক্ষেত্রে ৪ মাসের জন্য সুদ গণনা করা হবে।

বন্ধ করুন