গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ধানবাদে গ্রেফতার এক ব্যক্তি।
গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ধানবাদে গ্রেফতার এক ব্যক্তি।

গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডে ধানবাদ থেকে গ্রেফতার এক অভিযুক্ত

  • গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে যুক্ত বেঙ্গালুরু পুলিশের একটি দল বৃহস্পতিবার ঝাড়খণ্ডের ধানবাদ থেকে গ্রেফতার করেছে ওই মামলায় অভিযুক্ত রাজেশ দেবরিকর ওরফে মুরলী ওরফে শিবাকে।

সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ধানবাদ থেকে গ্রেফতার হয়েছে এক ব্যক্তি। শুক্রবার অভিযুক্তকে আদালতের অনুমোদন নিয়ে নিজেদের হেফাজতে নিতে চলেছে বেঙ্গালুরু পুলিশ।

গৌরী লঙ্কেশ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে যুক্ত বেঙ্গালুরু পুলিশের একটি দল বৃহস্পতিবার ঝাড়খণ্ডের ধানবাদ থেকে গ্রেফতার করেছে ওই মামলায় অভিযুক্ত রাজেশ দেবরিকর ওরফে মুরলী ওরফে শিবাকে। পুলিশের দাবি, গত কয়েক মাস ধরে ধানবাদের কাতরাস এলাকায় রাজগঢ়িয়া বাজারের কাছে এক শিল্পপতির বাড়িতে সে পরিচয় গোপন করে কেয়ারটেকার হিসেবে কর্মরত ছিল।

ঝাড়খণ্ড পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অনবরত মোবাইল নম্বর বদলানোর ফলে দেবরিকরের হদিশ পেতে মুশকিলে পড়েছিলেন গোয়েন্দারা। শেষ পর্যন্ত মোবাইল লোকেশন ট্র্যাক করে তার খোঁজ মেলে ধানবাদের ওই অঞ্চলে। সেখানে ৫ দিন নজরদারির পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার ঘর তল্লাশি করে সনাতন ধর্ম সংক্রান্ত কিছু বই উদ্ধার করা হয়েছে।

যার বাড়িতে সে কেয়ারটেকারের চাকরি নিয়েছিল সেই শিল্পপতি প্রদীপ খেমনা জানিয়েছেন, গোয়াবাসী এক বন্ধুর সুপারিশে তিনি দেবরিকরকে বহাল করেছিলেন। তবে তার অপরাধের ইতিহাস সম্পর্কে কিছু জানতেন বলে দাবি খেমনার।

২০১৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর বেঙ্গালুরুতে নিজের ফ্ল্যাটের বাইরে আততায়ীর গুলিতে খুন হন সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশ। তদন্তে নেমে এ পর্যন্ত ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৭ জনকে গ্রেফতার করেছে বেঙ্গালুরু পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দল।

গোয়েন্দাদের দাবি, লঙ্কেশ হত্যার পিছনে ধর্মীয় গোষ্ঠী সনাতন সন্থার সদস্যদের সক্রিয় ভূমিকা ছিল। তবে সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে ওই গোষ্ঠী।

বন্ধ করুন