কাঠমান্ডুর ধোঁয়াশামুক্ত ঝকঝকে আকাশে ঝলমলিয়ে উঠেছে মাউন্ট এভারেস্ট।
কাঠমান্ডুর ধোঁয়াশামুক্ত ঝকঝকে আকাশে ঝলমলিয়ে উঠেছে মাউন্ট এভারেস্ট।

ঘাড়ের ওপর এভারেস্ট! কাঠমান্ডুর আকাশে বিরল দৃশ্য

  • দূষণ কমার কারণে শহরের পরিবেশের হাল ফিরেছে। তাই আবার ধোঁয়াশামুক্ত ঝকঝকে আকাশে ঝলমলিয়ে উঠেছে মাউন্ট এভারেস্ট।

কাঠমান্ডু শহরের প্রায় ঘাড়ের উপরে হুমড়ি খেয়ে রয়েছে বিশ্বের সর্বোচ্চ পাহাড় চুড়ো মাউন্ট এভারেস্ট। বিরল এই দৃশ্য ফের দেখা গেল লকডাউনের মরশুমে।

বিশ্বব্যাপী করোনা সংক্রকমণের জেরে অধিকাংশ দেশেই লকডাউন আরোপ করা হয়েছে। এর ফলে রাস্তায় উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে গাড়ি চলাচল, আর তার জেরে দূষণ কমেছে চোখে পড়ার মতো। এ সবের ফলে কিছু দিন হল নেপালের রাজধানীর আকাশে আবার দেখা মিলছে এভারেস্টের, যা গত কয়েক দশকে নজরে পড়েনি।

ব্যস্ত শহর কাঠমান্ডুতে সাধারণ পরিস্থিতিতে গাড়ির ভিড় ও অসংখ্য রেস্তোরাঁয় মানুষের ঢল নামতে দেখা যায়। কিন্তু লকডাউনে গাড়ি চলাচল আর রেস্তোরাঁ চালু রাখার উপরে নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে নেপাল সরকার। ফলে এই দুইয়ের দৌলতে প্রতিদিন যে পরিমাণ বায়ুদূষণ হয়, তা আপাতত বন্ধ হয়েছে।

দূষণ কমার কারণে শহরের পরিবেশের হাল ফিরেছে। তাই আবার ধোঁয়াশামুক্ত ঝকঝকে আকাশে ঝলমলিয়ে উঠেছে মাউন্ট এভারেস্ট এবং তার আশপাশের বহু বরফচুড়োয দীর্ঘ কাল পরে সেই বিরল দৃশ্যের ছবি তুলতে ৮ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন কাঠমান্ডুবাসী। তাঁদেরই অনেকে সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলে তা দ্রুত আলোড়ন তৈরি করে। 

ঘটনা হল, এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে এ ভাবেই পঞ্জাবের জলন্ধর শহরের বাসিন্দারা বহু বছর পরে ফের দিগন্তে ধৌলাধর শিখর দেখে উচ্ছ্বাসে মেতেছিলেন। পরিবেশ দূষণের কারণে ধীরে ধীরে জলন্ধরের আকাশ থেকে মুছে গিয়েছিল এই অপরূপ দৃশ্য। 

বন্ধ করুন