ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

শ্রমিক বিক্ষোভের জেরে পাথরের ঘায়ে আহত মুত্থুট গ্রুপের এমডি

অভিযোগ সিটুর শ্রমিকরা এমডি-র গাড়িতে পাথর ছুঁড়েছিল।

মঙ্গলবার কেরালার কোচিতে শ্রমিক বিক্ষোভের সামনে পড়ে আহত হলেন স্বর্ণ ফিনান্সিং সংস্থা মুত্থুট গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জর্জ আলেক্সান্ডার। অভিযোগ সিপিএমের শ্রমিক সংগঠন সিটুর শ্রমিকরা তাঁর গাড়িতে পাথর ছুঁড়ে মারে। এতেই আহত হন তিনি। এই অভিযোগ অবশ্য অস্বীকার করেছে সিটু।

মাথায় ও ঘাড়ে চোট পেয়েছেন আলেক্সান্ডার। কোচির এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন তিনি। গত কিছুদিন ধরেই মুত্থুট গ্রুপে শ্রমিক সমস্যা চলছে। সেই জেরে ৪৩টি শাখা বন্ধ করে দিয়েছে সংস্থা।চাকরি হারিয়েছেন অনেক শ্রমিক। কেরলে ৬০০-র বেশি শাখা আছে মুত্থুটের। দুই দিন আগে শ্রমিকদের মধ্যে সমস্যার জেরে অশান্তি ছড়িয়েছিল। এদিন অবশ্য মাত্রা ছাড়িয়ে গেল সব অসন্তোষের। আহত হলেন সংস্থার এমডি।

সংস্থার তরফ থেকে বলা হয়েছে যে রাজ্যে ২৮০০ কর্মচারির মধ্যে মেরেকেটে ২৫০ জন সিটুর সদস্য হবেন। কিন্তু বহিরাগতদের সাহায্য নিয়ে তারা কাজ ভণ্ডুল করতে চায় বলে সংস্থার দাবি। যারা কাজ করতে ইচ্ছুক, তাদেরকে অনিচ্ছুকরা আক্রমণ করেছিল বলে মুত্থুটের দাবি। আহতদের মধ্য অনেকেই মহিলা বলে জানিয়েছে সংস্থা। মুত্থুটের ব্যবসা রাজ্যে সিটু বন্ধ করে দিতে চায় বলে সংস্থার দাবি। এই আক্রমণের কড়া প্রতিবাদ করেছে সিআইআই-এর কেরালা চ্যাপটার।

অন্যদিকে সিটু নেতা অনন্তলাবোত্তম আনন্দন জানিয়েছেন যে এই ঘটনায় তাদের কোনও হাত নেই। সিটু এরকম কোনও হিংসায় বিশ্বাস করে না বলেই সিটু নেতার দাবি। সিটুর দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন আলেক্সান্ডারের ছেলে।

অন্যদিকে বামপন্থী রাজ্যসরকার স্বভাবতই দোষ চাপিয়েছে সংস্থার ওপর। শ্রমমন্ত্রীর দাবি নিজেদের প্রতিশ্রুতি পূর্ণ করতে পারেনি মুত্থুট। তাই শ্রমিকরা অসন্তুষ্ট। তবে এই ঘটনার তদন্ত করা হবে বলে তিনি প্রতিশ্রতি দিয়েছেন।






বন্ধ করুন