বাড়ি > ঘরে বাইরে > দিল্লির উন্নয়নে বাধ সেধেছে আপ, রামলীলা ময়দান থেকে তোপ মোদীর
নাগরিক পরিষেবা দিতে ব্যর্থ দিল্লির শাসকদল আম আদমি পার্টির তীব্র সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।
নাগরিক পরিষেবা দিতে ব্যর্থ দিল্লির শাসকদল আম আদমি পার্টির তীব্র সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

দিল্লির উন্নয়নে বাধ সেধেছে আপ, রামলীলা ময়দান থেকে তোপ মোদীর

  • অবৈধ কলোনি এলাকার বৈধতাকরণ থেকে শুরু করে মেট্রো রেল পরিষেবার সম্প্রসারণে কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগের প্রচারের পাশাপাশি নাগরিক পরিষেবা দিতে ব্যর্থ দিল্লির শাসকদল আম আদমি পার্টির তীব্র সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

অন্যান্য সরকারের মতো দিল্লিবাসীর সমস্যা এড়িয়ে যায় না ভারতীয় জনতা পার্টি। রবিবার রামলীলা ময়দানের নির্বাচনী প্রচারসভায় এই দাবি জানিয়ে নতুন নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভের জন্য ‘অসত্’ বিরোধীদের দিকে আঙুল তুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এ দিন মোদী বলেন, ‘স্বাধীনতার কয়েক দশক পরেও দিল্লির বাসিন্দাদের এক বড় অংশকে আতঙ্ক, অনিশ্চয়তা, প্রতারণা ও মিথ্যা নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির শিকার হতে হয়েছে। বেআইনি দখলদারি, বুলডোজার এবং মেয়াদ শেষের মতো শব্দ তাঁদের প্রাত্যহিক জীবনের অঙ্গ হয়ে উঠেছে।’

অবৈধ কলোনি এলাকার বৈধতাকরণ থেকে শুরু করে মেট্রো রেল পরিষেবার সম্প্রসারণে কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগের প্রচারের পাশাপাশি এ দিন নাগরিক পরিষেবা দিতে ব্যর্থ দিল্লির শাসকদল আম আদমি পার্টির তীব্র সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

মোদীর দাবি, ‘মেট্রোর চতুর্থ পর্ব নিয়ে রাজনৈতিক বাধা সৃষ্টি না করলে আরও আগে ওই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে যেত। এই কারণেই বলছি, যারা আপনাদের নামে রাজনীতি করে, কখনও আপনাদের বেদনার কথা ভাবে না, তাদের কোনও দিনই সেই সদিচ্ছা ছিল না।’

এ দিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষ বর্ধন ও হরদীপ পুরী, দিল্লির বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি, হংলরাজ হংস, বিজয় গোয়েল ও মীণাক্ষী লেখির মতো শীর্ষস্থানীয় নেতারা।

লোকসভায় বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসার পরে এই প্রথম দিল্লিতে নির্বাচনী প্রচারসভা ককরলেন প্রধানমন্ত্রী।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী বিক্ষোভের মাঝেই নমোর এই সভা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সভায় বিজেপি নেতা বিজয় গোয়েল দিল্লির ১৭৩১টি বেআইনি কলোনির ৪০ লাখ বাসিন্দাকে মালিকানা দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

বন্ধ করুন