বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘ভারতীয়দের আশার সেতু মোদীজি’ ইউক্রেন থেকে উদ্ধার নিয়ে কার্টুন পোস্ট পীযূষের
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের পোস্ট করা সেই কার্টুন। 

‘ভারতীয়দের আশার সেতু মোদীজি’ ইউক্রেন থেকে উদ্ধার নিয়ে কার্টুন পোস্ট পীযূষের

  • তিনি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ‘কু’তে একটি কার্টুন শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি নদীতে ব্রিজের ভূমিকায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী।

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফেরাতে তৎপরতা দেখাচ্ছেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এমনই অভিযোগ তুলে সরব হয়েছিলেন বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী এখন ভোট নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। অন্যান্য দেশ যেখানে নিজেদের নাগরিকদের ফেরাতে ব্যস্ত, সেখানে ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানো নিয়ে কোনও ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে না প্রধানমন্ত্রীর। তবে বিরোধীদের দাবি যে সঠিক নয় তা একটি কার্টুন পোস্ট করে বুঝিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল।

তিনি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ‘কু’তে একটি কার্টুন শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি নদীতে ব্রিজের ভূমিকায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। নদীর এক প্রান্তে রয়েছে ইউক্রেন এবং অন্য প্রান্তে রয়েছে ভারত। যেখানে অন্যান্য দেশের নাগরিকরা নিজেদের সরকারের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন করেও সাহায্য পাচ্ছেন না, সেখানে ইউক্রেনে আটকে পড়া পড়ুয়ারা মোদির কাঁধের উপর দিয়ে হেঁটে নদী পারাপার করে ভারতে আসছেন।

 তিনি লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদীজি হলেন ভারতীয়দের আশার সেতু।’ যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় নাগরিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য মোদির প্রচেষ্টাকেই বোঝাতে চেয়েছেন পীযূষ গোয়েল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর শেয়ার করা এই পোস্টটি ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়াতেও ব্যাপকভাবে শেয়ার করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের বক্তব্য, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং অন্যান্য দেশ নিজেদের নাগরিকদের ইউক্রেন থেকে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে কোনও উদ্যোগ নিচ্ছে না। শুধুমাত্র ভারতেই নিজের দেশের নাগরিকদের ফিরিয়ে আনতে বদ্ধপরিকর।

প্রসঙ্গত, ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন থেকে এখনও পর্যন্ত ১৭০০০ ভারতীয়কে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়েছ। যারমধ্যে, ৩৭৭৬ জন ভারতীয়কে দেশে ফিরিয়ে আনার কাজ চলছে। ভারতীয় বায়ুসেনার ১৯ টি বিমানের মাধ্যমে প্রতিবেশী দেশগুলি থেকে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানোর কাজ চলছে।

বন্ধ করুন