বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জোর করে অথবা ইচ্ছার বিরুদ্ধে বৈধ স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস ধর্ষণ নয়: ছত্তিশগড় আদালত
বৈধ স্ত্রীকে জোর করে সহবাস করলে তা ধর্ষণ নয়, পর্যবেক্ষণ ছত্তিশগড় আদালতের।  (প্রতীকী ছবি)
বৈধ স্ত্রীকে জোর করে সহবাস করলে তা ধর্ষণ নয়, পর্যবেক্ষণ ছত্তিশগড় আদালতের।  (প্রতীকী ছবি)

জোর করে অথবা ইচ্ছার বিরুদ্ধে বৈধ স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস ধর্ষণ নয়: ছত্তিশগড় আদালত

  • স্ত্রীর যৌনাঙ্গে তিনি মুলো ও আঙুল প্রবেশ করাতেন বলেও স্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন।

জোর করেই হোক অথবা তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধে গিয়েই হোক, নিজের বৈধ স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস বা অন্য কোনও যৌন কার্যকলাপ করলে তা ধর্ষণ নয়। একথাই কার্যত জানিয়ে দিল ছত্তিশগড় হাইকোর্ট। এব্যাপারে ম্যারিটাল রেপের যাবতীয় অভিযোগ থেকে এক ব্যক্তিকে রেহাই দিয়েছে আদালত। পাশাপাশি আদালতের পর্যবেক্ষণ বৈধ স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস অথবা অন্য অন্য কোনও যৌন কার্যকলাপ করাকে ধর্ষণ বলে গণ্য করা যাবে না। স্বামী স্ত্রীকে জোর করে অথবা তাঁর ইচ্ছার বিরুদ্ধেও সহবাস করতে পারেন কিন্তু সেটিকে ধর্ষণ বলা যাবে না। তবে এক্ষেত্রে স্ত্রীকে অবশ্যই ১৮ বছরের উপর বয়স হতে হবে।

এদিকে স্ত্রীর অভিযোগ ছিল বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই অতিরিক্ত পণের দাবিতে তাঁর উপর শারীরিক নির্যাতন করা হত। পাশাপাশি স্বামীর বিরুদ্ধে একেবারে নির্দিষ্ট অভিযোগ ছিল যে তিনি তার স্ত্রীর সঙ্গে অস্বাভাবিক যৌন কার্যকলাপ করতেন। স্ত্রীর যৌনাঙ্গে তিনি মুলো ও আঙুল প্রবেশ করাতেন বলেও স্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন। তিনি এব্যাপারে প্রতিবাদ করলেও স্বামী শুনতেন না বলে অভিযোগ।  

তবে আদালতের পর্যবেক্ষণ, এই ধরনের উপাদান দিয়ে বৈধ স্ত্রীর সঙ্গে যৌন কার্যকলাপ করা স্বামীর বিরুদ্ধে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসাবে গণ্য করা যাবে না। ম্যারিটাল রেপ হিসাবেও এটি গণ্য নয়। এমনটাই জানিয়েছে আদালত। তবে ওই স্বামীকে বিভিন্ন অভিযোগ থেকে রেহাই দেওয়ার সময় ছত্তিশগড় আদালত অন্যান্য একাধিক আদালত যেমন গুয়াহাটি আদালত, গুজরাট আদালতের অতীতের রায়কে সামনে এনেছে। 

 

বন্ধ করুন