বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ১ লক্ষ টাকার গেম কিনল ৭ বছরের ছেলে, বিল মেটাতে গাড়ি বেচলেন বাবা
ছেলের গেমিংয়ের নেশার ফাঁদে পড়েছেন ব্রিটেনের নর্থ ওয়েলসের চিকিত্সক মহম্মদ মুতাজা। ফাইল ছবি : টুইটার (Twitter)
ছেলের গেমিংয়ের নেশার ফাঁদে পড়েছেন ব্রিটেনের নর্থ ওয়েলসের চিকিত্সক মহম্মদ মুতাজা। ফাইল ছবি : টুইটার (Twitter)

১ লক্ষ টাকার গেম কিনল ৭ বছরের ছেলে, বিল মেটাতে গাড়ি বেচলেন বাবা

  • ছেলের আচরণে রাগ করলেও সেরকম কিছু বলতেন না মহম্মদ। লকডাউনে হুটোপাটি না করে ছেলে চুপ তো বসে আছে!

অ্যাপের বিল হিসেবে আপনার ১ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা বাকি আছে। মেসেজটা দেখেই আঁতকে উঠেছিলেন বছর ৪০-এর মহম্মদ মুতাজা। ভেবেছিলেন নিশ্চয় কোনও জালিয়াতের ফাঁদে পড়েছেন। কিন্তু অ্যাপেলের কাস্টমার কেয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করতেই বুঝতে পারলেন আসল রহস্য।

জালিয়াত নয়। ছেলের গেমিংয়ের নেশার ফাঁদে পড়েছেন ব্রিটেনের নর্থ ওয়েলসের চিকিত্সক মহম্মদ মুতাজা। একটু খোলসা করে বলা যাক।

মহম্মদ মুতাজার ছেলে আসাজের বয়স ৭ বছর। এখনকার বেশিরভাগ শিশুদের মতোই তুমুল গেমিংয়ের নেশা। সুযোগ পেলেই বাবার আইফোনে গেম খেলতে বসে যায়। ছেলের আচরণে রাগ করলেও সেরকম কিছু বলতেন না মহম্মদ। লকডাউনে হুটোপাটি না করে ছেলে চুপ তো বসে আছে! কিন্তু গেম খেলতে গিয়েই যে এমন কাণ্ড ঘটবে কে জানত! কোনওভাবে বাবার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য জেনে ফেলে আসাজ।

আর তারপরেই একের পর এক গেম কিনতে শুরু করে সে। কোনও গেমের দাম ২০০ টাকা তো কোনওটার দাম ১০ হাজার। গেমের মধ্যেকার পয়েন্টস-ও কিনতে শুরু করে। এরপরেই মাসের শেষে ক্রেডিট কার্ডের বিল আসে মহম্মদের কাছে। ১ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা। সেটা দেখেই চক্ষু চড়কগাছ হয় তাঁর। প্রথমে ভাবেন নিশ্চয় কোনও জালিয়াতি হয়েছে। অ্যাপেলের কাস্টমার কেয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারেন রোজই বিভিন্ন গেম কেনা হয়েছে।

এরপর ছেলেকে জিজ্ঞাসা করতেই সে নির্লিপ্তভাবে গেম কেনার কথা জানায়। যেন কিচ্ছুটি হয়নি। শেষমেশ নিজের শখের গাড়ি বিক্রি করে ক্রেডিট কার্ডের বিল মিটিয়েছেন মহম্মদ।

বন্ধ করুন