প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

IT কর্মীদের থেকে বিশ্ব অর্থনীতিতে ৩ গুণ বেশি যোগদান 'গৃহবধূ'দের, বলছে রিপোর্ট

  • অক্সফ্যামের ভারতীয় শাখার সিইও অমিতাভ বেহার বলেছেন, ‘মহিলারাই আমাদের অর্থনীতির চালিকাশক্তি। আর এটা এবার সুনির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করার সময় এসেছে।’

বিশ্বে ধনের বৈষম্য ক্রমশ বাড়ছে। সুইৎজারল্যান্ডের দাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বৈঠক শুরুর কয়েক দিন আগে চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করল আন্তর্জাতিক সংস্থা অক্সফ্যাম। রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বিশ্বে ২,১৫৩ জন ধনকুবেরের সম্পদের পরিমান ৪৬০ কোটি মানুষের সম্পদের সমান। এমনকী সম্পদের বৈষম্য কাটাতে বিশ্ব ভুল পথে চলছে বলেও দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে। বলা হয়েছে, বিশ্বের অর্থনীতিতে তথ্য প্রযুক্তি কর্মীদের থেকে তিন গুণ বেশি অবদান রয়েছে গৃহবধূদের। অথচ তাদের দিকে খেয়ালই নেই কারও।

রিপোর্ট অনুসারে ভারতে ৬৩ জন ধনকুবেরের সম্পদ দেশের মোট বাজেট বরাদ্দের সমান। এছাড়া গোটা বিশ্বে মহিলারা বিনা পারিশ্রমিকে ১২৫০ কোটি ঘণ্টা ঘর গেরস্থালির কাজ করে বলে দাবি। এর ফলে বিশ্বের অর্থনীতিতে গত অর্থবর্ষে মোট ১,০৮,০০০ কোটি টাকা যোগ হয়েছে।

অক্সফ্যামের ভারতীয় শাখার সিইও অমিতাভ বেহার বলেছেন, ‘মহিলারাই আমাদের অর্থনীতির চালিকাশক্তি। আর এটা এবার সুনির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করার সময় এসেছে।’ তিনি বলেন, একজন ভারতীয় মহিলা দিনে ১৬ থেকে ১৭ ঘণ্টা কাজ করেন। দূর দূরান্ত থেকে জল আনা, রান্না করা, ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠানো সবই তারা করে বিনামূল্যে। উলটো দিকে কোটিপতিরা ব্যক্তিগত বিমানে চড়ে সম্মেলনে যোগ দিতে যান। এর বিহিত হওয়া দরকার।

সমস্যার সমাধানে উপায়ও বলেছেন বেহার। তিনি বলেন, এই সমস্যার সমাধানে ধনকুবেরদের ওপরে বিপুল অংকের কর বসানো উচিত সরকারগুলির। সেই করের টাকায় পরিষ্কার পানীয় জল, স্বাস্থ্য পরিষেবা ও আরও ভাল স্কুল তৈরি করা উচিত।

বন্ধ করুন