বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব পতাকা না ফেরালে জাতীয় পতাকা তুলব না, ঘোষণা মেহবুবার
জম্মু ও কাশ্মীরের পতাকা ছাড়া এবং সাংবিধানিক মর্যাদা না ফেরানো পর্যন্ত কোনও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি।
জম্মু ও কাশ্মীরের পতাকা ছাড়া এবং সাংবিধানিক মর্যাদা না ফেরানো পর্যন্ত কোনও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি।

জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব পতাকা না ফেরালে জাতীয় পতাকা তুলব না, ঘোষণা মেহবুবার

  • জাতীয় পতাকার সঙ্গে গভীর সংযোগ রয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব পতাকার। আমাদের পতাকা ফেরত পেলেই ভারতের পতাকা উত্তোলন করবেন বলে জানিয়েছেন পিডিপি নেত্রী।

জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের সাবেক পতাকা ফিরিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত ভারতের জাতীয় পতাকা তুলবেন না। কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এ ভাবেই তোপ দাগলেন পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি। তাঁর মন্তব্য ঘিরে শুরু হল নতুন বিতর্ক।

শুক্রবার শ্রীনগরের গুপকর রোডের বসতবাড়িতে সাংবাদিক বৈঠকে জন্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের সাবেক পতাকা হাতে উপস্থিত হন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। সেই সঙ্গে নিজের দলের পতাকাও এনেছিলেন পিডিপি নেত্রী। 

দীর্ঘ ১৪ মাস আটক থাকার পরে তাঁর প্রথম সাংবাদিক বৈঠকে মেহবুবা জানিয়েছিলেন, শুধুমাত্র ৩৭০ ধারা প্রত্যাবর্তনেই তাঁর লড়াই সীমাবদ্ধ নেই। সমগ্র কাশ্মীর সমস্যার সমাধানও তিনি দাবি করেন। 
এ দিন মেহবুবা বলেন, ‘জাতীয় পতাকার সঙ্গে গভীর সংযোগ রয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরের নিজস্ব পতাকার। আমাদের পতাকা ফেরত পেলেই ভারতের পতাকা উত্তোলন করব। যত দিন পর্যন্ত না আমাদের লুঠ করা পতাকা ফেরত পাচ্ছি, তত দিন অন্য কোনও পতাকা তুলব না।’

নেত্রী বলেন, কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে ত্যাগ স্বীকার করেছেন মানুষ। এবার নেতারা তাঁদের কাজ করে দেখান। তাঁর অভিযোগ, জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষদের কথা না ভেবে শুধুমাত্র কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের কথাই চিন্তা করেছে দিল্লি।

নির্বাচন সম্পর্কে মেহবুবা বলেছেন, ‘আমরা এর আগে পঞ্চায়েত নির্বাচন বয়কট করেছি। দলের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার পরে নির্বাচন সম্পর্কে পিপলস অ্যালায়েন্স-এর বক্তব্য জানানো হবে। যত দূর জানি, জম্মু ও কাশ্মীরের পতাকা ছাড়া এবং সংবিধানের ধারা না ফেরানো পর্যন্ত আমি কোনও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব না।’

একই সঙ্গে কেন্দ্রে আসীন বিজেপি সরকার ধর্মের নামে রাজনীতি করে দেশে বৈষম্য সৃষ্টি করছে বলেও অভিযোগ জানিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

বন্ধ করুন