বাংলা নিউজ > ছবিঘর > 'মহেন্দ্র' থেকে 'কুশল হাজরা', জন্মদিনে প্রসেনজিতের সেরা পাঁচ; দেখে নিন এক্ষুণি!

'মহেন্দ্র' থেকে 'কুশল হাজরা', জন্মদিনে প্রসেনজিতের সেরা পাঁচ; দেখে নিন এক্ষুণি!

  • ৩০ সেপ্টেম্বর ৫৯-য়ে পা রাখলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। এই ষাট ছুঁইছুঁই বয়সেও তাঁর মুখেই মানায়, 'আমিই ইন্ডাস্ট্রি!' কেরিয়ারে ৩৫০-র বেশি ছবির মধ্যে রইল তাঁর অভিনীত সেরা কয়েকটি চরিত্রের ঝলক।
প্রায় চার দশকের কেরিয়ারে অভিনয় করেছেন ৩৫০-র বেশি ছবিতে। বাণিজ্যিক মশলা ছবি হোক কিংবা অন্যধারার ছবি সবেতেই তাঁর দক্ষতা হেলায় প্রমাণ করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। প্রায় ষাট ছুঁইছুঁই বয়সেও টলিপাড়ার এই সুপারস্টারের নতুন ছবি দেখার জন্য সিনেমা হলে উপচে পড়ে দর্শক। (ছবি সৌজন্যে- টুইটার)
1/6প্রায় চার দশকের কেরিয়ারে অভিনয় করেছেন ৩৫০-র বেশি ছবিতে। বাণিজ্যিক মশলা ছবি হোক কিংবা অন্যধারার ছবি সবেতেই তাঁর দক্ষতা হেলায় প্রমাণ করেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। প্রায় ষাট ছুঁইছুঁই বয়সেও টলিপাড়ার এই সুপারস্টারের নতুন ছবি দেখার জন্য সিনেমা হলে উপচে পড়ে দর্শক। (ছবি সৌজন্যে- টুইটার)
ঋতুপর্ণ ঘোষের পরিচালনায় 'চোখের বালি' ছবিতে 'মহেন্দ্র'-র ভূমিকায় প্রসেনজিতের নজরকাড়া অভিনয় দেখে দর্শকের পাশাপাশি মুগ্ধ হয়েছিল ছবি সমালোচকের দলও। 'মহেন্দ্র'-র মত একজন গুরুগম্ভীর,জটিল মানসিকতার ও কামুক চরিত্রের ব্যক্তিত্বে প্রসেনজিতের অভিনয় দেখে চমকে গেছিল তামাম দর্শককুল। ছবিতে 'বিনোদিনী'-র ভূমিকায় ঐশ্বর্য রাই বচ্চন থাকলেও নিজের স্ক্রিন প্রেজেন্স এতটুকুও ফিকে হতে দেননি 'বুম্বাদা'। (ছবি সৌজন্যে - গুগল)
2/6ঋতুপর্ণ ঘোষের পরিচালনায় 'চোখের বালি' ছবিতে 'মহেন্দ্র'-র ভূমিকায় প্রসেনজিতের নজরকাড়া অভিনয় দেখে দর্শকের পাশাপাশি মুগ্ধ হয়েছিল ছবি সমালোচকের দলও। 'মহেন্দ্র'-র মত একজন গুরুগম্ভীর,জটিল মানসিকতার ও কামুক চরিত্রের ব্যক্তিত্বে প্রসেনজিতের অভিনয় দেখে চমকে গেছিল তামাম দর্শককুল। ছবিতে 'বিনোদিনী'-র ভূমিকায় ঐশ্বর্য রাই বচ্চন থাকলেও নিজের স্ক্রিন প্রেজেন্স এতটুকুও ফিকে হতে দেননি 'বুম্বাদা'। (ছবি সৌজন্যে - গুগল)
সালটা ২০১০। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় মুক্তি পেয়েছিল 'অটোগ্রাফ'। সত্যজিৎ রায়ের 'নায়ক' ছবির প্রতি ট্রিবিউট জানিয়ে তৈরি এই ছবিতে এক সম্পূর্ণ নতুন প্রসেনজিতকে আবিষ্কার করেছিল বাঙালি দর্শক। অভিনয় তো বটেই, ছবির গান থেকে সংলাপ চিরদিনের জন্য পাকা জায়গা করে নিয়েছে দর্শকদের মনে। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)
3/6সালটা ২০১০। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় মুক্তি পেয়েছিল 'অটোগ্রাফ'। সত্যজিৎ রায়ের 'নায়ক' ছবির প্রতি ট্রিবিউট জানিয়ে তৈরি এই ছবিতে এক সম্পূর্ণ নতুন প্রসেনজিতকে আবিষ্কার করেছিল বাঙালি দর্শক। অভিনয় তো বটেই, ছবির গান থেকে সংলাপ চিরদিনের জন্য পাকা জায়গা করে নিয়েছে দর্শকদের মনে। (ছবি সৌজন্যে - টুইটার)
২০১০ এর একেবারে শেষ দিকে মুক্তি পেয়েছিল গৌতম ঘোষের পরিচালনায় 'মনের মানুষ'। লালন ফকিরকে নিয়ে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের এই বিখ্যাত উপন্যাসকে পর্দায় রূপ দিয়েছিলেন এই বিখ্যাত পরিচালক। বক্স অফিসে সাফল্য পাওয়ার পাশাপাশি ছবিতে নামভূমিকায় প্রসেনজিতের অভিনয় দেখে সমালোচকরা পর্যন্ত বলতে বাধ্য হয়েছিলেন গত তিন দশকের বাণিজ্যিক ছবির নায়ক প্রসেনজিতের সঙ্গে এই অভিনেতার সামান্যতম মিলটুকুও নেই!
4/6২০১০ এর একেবারে শেষ দিকে মুক্তি পেয়েছিল গৌতম ঘোষের পরিচালনায় 'মনের মানুষ'। লালন ফকিরকে নিয়ে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের এই বিখ্যাত উপন্যাসকে পর্দায় রূপ দিয়েছিলেন এই বিখ্যাত পরিচালক। বক্স অফিসে সাফল্য পাওয়ার পাশাপাশি ছবিতে নামভূমিকায় প্রসেনজিতের অভিনয় দেখে সমালোচকরা পর্যন্ত বলতে বাধ্য হয়েছিলেন গত তিন দশকের বাণিজ্যিক ছবির নায়ক প্রসেনজিতের সঙ্গে এই অভিনেতার সামান্যতম মিলটুকুও নেই!
 ২০১৪ সালে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় মুক্তি পেয়েছিল 'জাতিস্মর'। ছবিতে অ্যান্টনি ফিরিঙ্গি এবং কুশল হাজরা এই দুই চরিত্রেই দেখা গেছিল প্রসেনজিতকে। দ্বৈত চরিত্রে সম্পূর্ণ আলাদা লুক থেকে শুরু করে 'বুম্বাদা'-র জবরদস্ত অভিনয়ের সুবাদে বক্স অফিসে রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি 'জাতিস্মর' পৌঁছে গেছিল জাতীয় পুরস্কারের মঞ্চে। (ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)
5/6 ২০১৪ সালে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় মুক্তি পেয়েছিল 'জাতিস্মর'। ছবিতে অ্যান্টনি ফিরিঙ্গি এবং কুশল হাজরা এই দুই চরিত্রেই দেখা গেছিল প্রসেনজিতকে। দ্বৈত চরিত্রে সম্পূর্ণ আলাদা লুক থেকে শুরু করে 'বুম্বাদা'-র জবরদস্ত অভিনয়ের সুবাদে বক্স অফিসে রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি 'জাতিস্মর' পৌঁছে গেছিল জাতীয় পুরস্কারের মঞ্চে। (ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)
২০০৬ সালে যখন টলিপাড়ার বাণিজ্যিক ছবি এবং প্রসেনজিৎ প্রায় সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছে সেই সময়ে সবাইকে চমকে দিয়ে ঋতুপর্ণ ঘোষের 'দোসর' ছবিতে হাজির হলেন প্রসেনজিৎ। 'কৌশিক চট্টোপাধ্যায়' এর চরিত্রে প্রসেনজিতের নিচু তারে বাঁধা অভিনয়ে বুঁদ হয়েছিল সিনেমাপ্রেমীরা। একজন পঙ্গু ব্যক্তির হতাশা, রাগ এবং নিজের সঙ্গে ক্রমাগত দ্বন্দ্বের সমস্ত অভিব্যক্তি প্রায় নিখুঁতভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছিলেন এই টলি-তারকা। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
6/6২০০৬ সালে যখন টলিপাড়ার বাণিজ্যিক ছবি এবং প্রসেনজিৎ প্রায় সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছে সেই সময়ে সবাইকে চমকে দিয়ে ঋতুপর্ণ ঘোষের 'দোসর' ছবিতে হাজির হলেন প্রসেনজিৎ। 'কৌশিক চট্টোপাধ্যায়' এর চরিত্রে প্রসেনজিতের নিচু তারে বাঁধা অভিনয়ে বুঁদ হয়েছিল সিনেমাপ্রেমীরা। একজন পঙ্গু ব্যক্তির হতাশা, রাগ এবং নিজের সঙ্গে ক্রমাগত দ্বন্দ্বের সমস্ত অভিব্যক্তি প্রায় নিখুঁতভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছিলেন এই টলি-তারকা। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
অন্য গ্যালারিগুলি