বাড়ি > ময়দান > চুক্তির অর্ধেক টাকাও পাননি ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটাররা, বেতন নিয়ে আশার বাণী শোনাতে পারছে না ক্লাব
ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটাররা।
ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটাররা।

চুক্তির অর্ধেক টাকাও পাননি ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেটাররা, বেতন নিয়ে আশার বাণী শোনাতে পারছে না ক্লাব

  • লাল-হলুদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক গলাতে চাইছে না CAB।

শতবর্ষে অদ্ভূত গোলকধাঁধায় ইস্টবেঙ্গল ক্লাব। স্পনসরের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ায় ফুটবলারদের সঙ্গেও মেয়াদের আগেই চুক্তি বাতিল করতে হয়েছে ক্লাবকে। যার ফলে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ফুটবলারদের মধ্যে অসন্তোষ দানা বাঁধছে। বিহিত চাইতে ফেডারেশনের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও ভাবছেন বহু ফুটবলার। যদিও তাতে নতুন মরশুমের দল গড়ায় কোনও প্রভাব পড়েনি।

সমস্যা শুধু ফুলবল নিয়েই নয়। বরং সমস্যাটা আরও জটিল ইস্টবেঙ্গলের ক্রিকেট দল নিয়ে। মাইলস্টোন বছরকে স্মরণীয় করে রাখার ইচ্ছায় ঘটা করে সাজানো হয়েছিল লাল-হলুদের ক্রিকেট দল। বাংলা অধিনায়ক অভিমন্যু ঈশ্বরন, ভারতীয়-এ দলে খেলা পেসার ইশান পোড়েলের মতো তারকাদের দলে নেওয়া হয়েছিল মোটা অঙ্কের বিনিময়ে।

সব মিলিয়ে ক্রিকেটের জন্যই ইস্টবেঙ্গলের বাজেট ছিল প্রায় ৯০ লক্ষ টাকা। স্পনসরের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী কোয়েসেরই দেওয়ার কথা ছিল ক্রিকেট দলের জন্য বরাদ্দ অর্থ। ফুটবলারদের তবু মাত্র ১ মাসের বেতন নিয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছে। ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে বকেয়া আরও অনেক বেশি। চুক্তির ৫০ শতাংশ অর্থও দেওয়া হয়নি কোনও ক্রিকেটারকে। অথচ স্পনসরদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তারা ক্রিকেটারদের অর্থ আর দেবে না।

রাজ্য দলের হয়ে যাঁরা প্রতিনিধিত্ব করেন অথবা যাঁরা অন্য কোনও চাকরি করেন, তাঁদের খুব একটা অসুবিধা না হলেও যাঁদের রুজিরুটি ক্লাব ক্রিকেটের উপর নির্ভরশীল, লকডাউনে তাঁরা পড়েছেন মহা সমস্যায়। অথচ ক্লাবের তরফে কোনও আশার বাণী শোনানো সম্ভব হয়নি। বরং ক্লাবের ক্রিকেট সেক্রেটারি স্পষ্ট জানিয়েছেন যে, স্পনসর চলে যাওয়ায় কীভাবে টাকা দেওয়া হবে, তা নিয়ে ঘোর সংশয় রয়েছে। আপাতত সিএবিও ইস্টবেঙ্গলের অভ্যন্তরীণ সমস্যা বাড়াতে বিষয়টিতে নাক গলাতে চাইছে না।

বন্ধ করুন