বাংলা নিউজ > ময়দান > ক্রুণাল পান্ডিয়ার সঙ্গে ‘ঝামেলার’ পর চলতি মরশুমে হুডাকে নিষিদ্ধ করল বরোদা
দীপক হুডা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)
দীপক হুডা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক)

ক্রুণাল পান্ডিয়ার সঙ্গে ‘ঝামেলার’ পর চলতি মরশুমে হুডাকে নিষিদ্ধ করল বরোদা

  • অনুশীলন চলাকালীন বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন ক্রুনাল এবং হুডা।

ক্রুণাল পান্ডিয়ার সঙ্গে বাদানুবাদের পর দলের জৈবসুরক্ষা বলয় ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিলেন। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি থেকে নামও তুলে নেন। তারই রেশ ধরে চলতি ঘরোয়া মরশুমের জন্য দীপক হুডাকে সাসপেন্ড করল বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএ)। যদিও সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভপ্রকাশ করেছে রাজ্য সংস্থার একাধিক সদস্য।

বিসিএয়ের প্রেস এবং পাবলিসিটির চেয়ারম্যান সত্যজিৎ গায়কোয়াড় জানান, চলতি ঘরোয়া মরশুমের জন্য হুডাকে আর বিবেচনা না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাপেক্স কাউন্সিল। পান্ডিয়ার সঙ্গে হুডার যে ঝামেলা হয়েছিল, তা নিয়ে দলের কোচ এবং টিম ম্যানেজারের রিপোর্ট খতিয়ে দেখিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কথা বলা হয়েছে হুডার সঙ্গেও। যদিও সেই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন অ্যাপেক্স কাউন্সিলের কয়েকজন সদস্য। তাতে অবশ্য কোনও লাভ হয়নি। গায়কোয়াড় জানান, সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির পাশাপাশি এবারের বিজয় হাজারে ট্রফিতেও খেলতে পারবেন না হুডা। তিনি আবার ২০২১-২২ মরশুমে বরোদার জার্সি গায়ে মাঠে নামতে পারবেন। 

সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি শুরুর আগে অশান্তির আগুন জ্বলতে শুরু করেছিল বরোদা দলে। গত ৯ জানুয়ারি অনুশীলন চলাকালীন বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন ক্রুনাল এবং সহ-অধিনায়ক হুডা। বিসিএকে লেখা চিঠিতে হুডা জানিয়েছিলেন, তাঁর সঙ্গে অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলেছেন ক্রুনাল। গালিগালাজ করা হয়েছিল বলেও অভিযোগ তোলেন। একইসঙ্গে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগ থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার নেন হুডা।

বিসিএয়ের যুগ্মসচিব পরাগ প্যাটেল জানান, দলের ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আলোচনা না করেই দল থেকে বেরিয়ে গিয়ে হুডা ভুল করেছেন। তবে পুরো মরশুমের জন্য তাঁকে নিষিদ্ধ করার কোনও প্রয়োজন ছিল না। সেই কাজের জন্য তাঁকে ছাড় দেওয়া যেত এবং খেলতে দেওয়া উচিত ছিল।

বন্ধ করুন