বাংলা নিউজ > ময়দান > ফ্রেঞ্চ ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়ে ৫২ বছর আগের রেকর্ড স্পর্শ করলেন জোকোভিচ
জয়ের হাসি জোকোভিচের। ছবি: পিটিআই
জয়ের হাসি জোকোভিচের। ছবি: পিটিআই

ফ্রেঞ্চ ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়ে ৫২ বছর আগের রেকর্ড স্পর্শ করলেন জোকোভিচ

  • দু'সেটে পিছিয়ে থাকার পরেও অসাধারণ প্রত্যাবর্তন করে গ্রিসের স্টিফানোস চিচিপাসকে হারালেন ৬-৭, ২-৬, ৬-৩, ৬-২, ৬-৪।

৫২ বছরের পুরনো ইতিহাসকে রবিবার রাতে রোলাঁ গারোর মঞ্চে ফিরিয়ে আনলেন নোভক জোকোভিচ। এ বারের ফ্রেঞ্চ ওপেন জেতার ফলে, সব গ্র্যান্ড স্লামই অন্তত দু'বার করে জিতে ফেললেন জোকার। এতদিন এই রেকর্ডের মালিক ছিলেন শুধুমাত্র রয় এমার্সন এবং রড লেভার। সেই রেকর্ডই রবিবার রাতে স্পর্শ করলেন জোকার। ১৯৬৯ সালে রড লেভার শেষ বার এই রেকর্ড করেছিলেন। তার পরে ফের ২০২১ সালে এই রেকর্ড করলেন জোকোভিচ।

এ দিন গ্রিসের তরুণ তুর্কি  স্টিফানোস চিচিপাসের সঙ্গে জোকোভিচের ফ্রেঞ্চ ওপেন ফাইনালের লড়াইটা আদৌ জমবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় ছিল টেনিসপ্রেমীদের মধ্যে। কিন্তু জোকোভিচ বনাম স্টিফানোস চিচিপাসের দুরন্ত লড়াই দেখে মন ভরে গিয়েছে প্রত্যেকের। অসাধারণ লড়লেন চিচিপাস। কিন্তু শেষ রক্ষা করতে পারলেন না। অভিজ্ঞতার কাছেই মূলত হার মানলেন গ্রিসের তারকা প্লেয়ার। এ দিকে দু'সেটে পিছিয়ে থাকার পরেও অসাধারণ প্রত্যাবর্তন করে ৬-৭ ((৬/৮)), ২-৬, ৬-৩, ৬-২, ৬-৪-এ চিচিপাসকে হারিয়ে গ্রিসের স্বপ্ন ভাঙলেন জোকোভিচ।

রোলাঁ গারোর মঞ্চে রাফায়েল নাদালকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠার পর কোনও টেনিস প্লেয়ার এত দিন চ্যাম্পিয়ন হতে পারেননি। এ বার সেটাও করে দেখালেন জোকোভিচ। এর আগেও কোয়ার্টার ফাইনালে নাদালকে হারিয়ে ফাইনালে উঠলেও, সেই ম্যাচ হেরে গিয়েছিলেন জোকোভিচ। এ বার সেটা তিনি ঘটতে দিলেন না। বরং কেরিয়ারের ১৯তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে রজার ফেডেরার এবং রাফায়েল নাদালের ঘাড়েই নিঃশ্বাস ফেলছেন সার্বিয়ার তারকা প্লেয়ার। ফেডেক্স এবং রাফা ২০টি করে গ্র্যান্ডস্লাম জিতেছেন।

এ দিন শুরুর দিকে জোকোভিচকে বেশ চাপে ফেলে দিয়েছিলেন চিচিপাস। প্রথম দু'টি সেটে জয় ছিনিয়ে নেন তিনি। সে সময়ে চিচিপাসকে নিয়ে গ্রিস নতুন স্বপ্ন দেখতেও শুরু করে দিয়েছিল। আসলে চিচিপাসই গ্রিসের প্রথম প্লেয়ার, যিনি কোনও গ্র্যান্ডস্লামের ফাইনালে উঠেছেন। ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতলে, চিচিপাসই নতুন ইতিহাস লিখতে পারতেন। দেশের প্রথম প্লেয়ার হিসেবে গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের রেকর্ড করার সুযোগ ছিল তাঁর সামনে। কিন্তু তৃতীয় সেট থেকেই সব কিছু ওলটপালট করে দেন জোকোভিচ। অসাধারণ ছন্দে ফিরে পরের তিন সেটে কার্যত চিচিপাসকে উড়িয়ে দেন।

গত বছর ফ্রেঞ্চ ওপেনের সেমিফাইনালে সার্বিয়ার তারকা প্লেয়ারের মুখোমুখি হয়েছিলেন চিচিপাস। কিন্তু তিনি ৬-৩, ৬-২, ৫-৭, ৪-৬, ৬-১ ব্যবধানে হেরে যান। এই বছর রোম মাস্টার্সের কোয়ার্টার ফাইনালেও ক্লে কোর্টে জকোভিচের কাছে হারেন তিনি। আর রবিবার ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে আশা জাগিয়েও হারতে হল তাঁকে।

বন্ধ করুন