বাংলা নিউজ > ময়দান > ফ্রেঞ্চ ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার পর ওসাকা বিতর্কে সরব হলেন জোকোভিচ
ওসাকা এবং জোকোভিচ।
ওসাকা এবং জোকোভিচ।

ফ্রেঞ্চ ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠার পর ওসাকা বিতর্কে সরব হলেন জোকোভিচ

  • ওসাকা বিতর্কে ফ্রেঞ্চ ওপেনের আয়োজকদের উপরেই ক্ষোভ উগড়ে দিলেন নোভক জোকোভিচ।

এখন রোলাঁ গারোর ফলাফলের চেয়ে প্রধান বিষয় হয়ে উঠেছে নাওমি ওসাকা বিতর্ক। আয়োজকদের সিদ্ধান্তে অপমানিত হয়ে ওসাকা ফ্রেঞ্চ ওপেন থেকে নাম তুলে নেওয়ার পর থেকেই চলছে কাটাছেঁড়া। এ বার সেই বিতর্কে মুখ খুললেন নোভক জোকোভিচও। 

প্রথম রাউন্ডে আমেরিকার অবাছাই প্রতিযোগী টেন্নিস স্যান্ডগ্রেনের বিরুদ্ধে সহজ জয় ছিনিয়ে নেন জোকার। স্ট্রেট সেটে ৬-২, ৬-৪, ৬-২-এ স্যান্ডগ্রেনকে উড়িয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে পৌঁছান নোভক। আর এর পরেই সাংবাদিক সম্মেলনে এসে ওসাকাকে নিয়ে সরব হন তিনি। জোকার স্পষ্ট ভাষায় বলে দেন, জাপানের টেনিস তারকার যন্ত্রণাটা তিনি কিছুটা হলেও বোঝেন।

তিনি বলেন, ‘আমি ওকে (নাওমি) সমর্থন করি। আমার মনে হয়, ও খুবই সাহসী। তাই এই কাজটা করতে পেরেছে। ও যে যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে এবং মানসিক ভাবে ওকে যে কষ্টটা পেতে হয়েছে, তার জন্য আমার খুব খারাপ লাগছে। তবে আমি বলব, এটা ওর খুবই সাহসী সিদ্ধান্ত ছিল। যদি ওর নিজের জন্য সময়ের প্রয়োজন থাকে বা নিজেকে গুছিয়ে নেওয়ার দরকার থাকে, ও সেটা করতেই পারে। আমি সেটাকে শ্রদ্ধা করি। আমার মনে হয়, ও আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসবে।’

প্রসঙ্গত, লাইন আম্পায়ারের গায়ে বল ছুঁড়ে মারার অভিযোগে গত বছর মার্কিন ওপেন থেকে বহিষ্কৃত করা হয়েছিল জোকোভিচকে। নাওমির কষ্টটা হয়তো সে কারণেই তাঁকে বেশি করে ছুঁয়ে গিয়েছে। জোকার বলছিলেন, ‘২০১৮ ইউএস ওপেন চলাকালীন আমারও খুব যন্ত্রণার মধ্যে কেটেছিল। এবং এর সঙ্গে মোকাবিলা করাটাও খুবই সমস্যার হয়ে উঠেছিল। তাই সে সময় প্য়ারিসে আমার মনে হত, সাংবাদিক সম্মেলনের বদলে নিজের দিকে খেয়াল দেওয়াটা দরকার। সেটাই তখন গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

নাওমি ওসাকা সাংবাদিক সম্মেলন করতে না যাওয়ায় শাস্তির মুখে পড়তে চলেছিলেন। এই অপমানে তিনি নিজেই রোলাঁ গারো থেকেই নাম প্রত্যাহার করে নেন। জোকোভিচ আবশ্য আয়োজকদের এই ব্যবহারে অবাক নন। তিনি মনে করেন, প্লেয়ারদের আগলে রাখার বদলে আয়োজকরা নিজেদের সুরক্ষিত রাখতেই বেশি ব্যস্ত থাকে।

বন্ধ করুন