বাংলা নিউজ > ময়দান > চুক্তি বাতিলের পর পুরনো গোলকিপারকে নতুন করে দলে নিল ইস্টবেঙ্গল
ইস্টবেঙ্গল গোলরক্ষক মিরশাদ মিচু। ছবি- ফেসবুক।
ইস্টবেঙ্গল গোলরক্ষক মিরশাদ মিচু। ছবি- ফেসবুক।

চুক্তি বাতিলের পর পুরনো গোলকিপারকে নতুন করে দলে নিল ইস্টবেঙ্গল

  • আগের স্কোয়াড থেকে দু'জন ডিফেন্ডারের সঙ্গে চুক্তি নবীকরণ করতে পারে লাল-হলুদ শিবির।

লকডাউনে দলবদলের বাজার কার্যত একাই মাতিয়ে রেখেছে ইস্টবেঙ্গল। কোয়েসের সঙ্গে চুক্তি ছিন্ন হওয়ার পর লাল-হলুদ কর্তারা নতুন মরশুমের জন্য ঢেলে সাজাচ্ছেন দল। আই লিগ বা আইএসএল, যে লিগেই খেলতে হোক না কেন, অত্যন্ত শক্তিশালী দল গড়ে প্রস্তুত থাকতে চাইছে ইস্টবেঙ্গল।

একঝাঁক ভারতীয় ফুটবলারের সঙ্গে ইতিমধ্যেই নতুন করে চুক্তি করেছে ইস্টবেঙ্গল। কথা চলছে আরও কিছু ফুটবলারের সঙ্গে। যদিও পুরনো স্কোয়াডের ফুটবলারদের ভবিষ্যৎ কী হবে, তা নিয়ে পরিষ্কার কোনও ধারণা দেয়নি ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে এটা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে, পুরনো স্কোয়াডের কিছু ফুটবলারকে ধরে রাখবে লাল-হলুদ শিবির। সেই পথে হাঁটাও শুরু করে দিল তারা।

পুরনো স্কোয়াডের প্রথম ফুটবলার হিসেবে গোলকিপার মিরশাদ মিচুর সঙ্গে চুক্তি নবীকরণ করল ইস্টবেঙ্গল। ক্লাবের তরফে মিচুকে রিটেন করা হল বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। রিটেন করার কথা বলা হলেও আক্ষরিক অর্থে ২৬ বছর বয়সী গোলরক্ষকের সঙ্গে ক্লাব নতুন করে চুক্তি করল বলাই শ্রেয় হবে। কেননা কোয়েস ইতিমধ্যেই সমস্ত ফুটবলারদের স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, করোনা মহামারির জন্য আবশ্যিক ভিত্তিতে সবার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। অর্থাৎ, ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে আপাতত পুরনো স্কোয়াডের কোনও ফুটবলারের চুক্তি নেই। মিচুই প্রথম ফুটবলার যাঁকে নতুন স্কোয়াডে টেনে নেওয়া হল।

ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে লালরিনডিকা রালতে, ব্র্যান্ডন, অভিষেক আম্বেকর, আশীর আখতার, শামাদ আলি মল্লিক, প্রকাশ সরকার, মনোজ মহম্মদ, হাওকিপ প্রমুখ ফুটবলারদের এক বা একাধিক বছরের চুক্তি বাকি ছিল। কয়েকজন বিদেশি ফুটবলারের সঙ্গেও দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি ছিল ক্লাবের। তাঁদের ভবিষ্যৎ কী হবে, তা এখনও নিশ্চিত নয়। ফুটবলাররা ইতিমধ্যেই প্লেয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন মারফৎ ফেডারেশনের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে পুরনো স্কোয়াড থেকে দু'জন ডিফেন্ডারকে নতুন করে চুক্তিবদ্ধ করার ইচ্ছা রয়েছে ইস্টবেঙ্গলের।

বন্ধ করুন