বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > মালিকানা বদলের পরেই ছাঁটাই নিউক্যাসেল কোচ ব্রুস
স্টিভ ব্রুস।
স্টিভ ব্রুস।

মালিকানা বদলের পরেই ছাঁটাই নিউক্যাসেল কোচ ব্রুস

  • নতুন মালিকের কোচ হিসেবে না পসন্দ স্টিভ ব্রুসকে। তবে এই ভাবে ব্রুসকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে, তা হয়তো আন্দাজ করা যায়নি। তবে মালিকানা বদলের পরে ব্রুস নিজেও নিজের চাকরি নিয়ে চিন্তায় ছিলেন, তা বলাই বাহুল্য। কোচের ছাঁটাইয়ের বিষয়টি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে নিশ্চিত করেছে নিউক্যাসেল।

শুভব্রত মুখার্জি: মাত্র কয়েক দিন আগেই প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব নিউক্যাসল ইউনাইটেডের মালিকানা বদলের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে তাদের মালিকানা রয়েছে সৌদি কোম্পানিদের কনসর্টিয়ামের হাতে। সৌদি যুবরাজ মহম্মদ বিন সালমান আল সৌদের স্নেহধন্য একটি কনসোর্টিয়াম ৩০ কোটি পাউন্ডের বিনিময়ে নিউক্যাসলের ১০০ শতাংশ মালিকানা কিনে নিয়েছে। এবার সময় এসেছে ক্লাবকে একেবার ঢেলে সাজানোর। ঠিক যেমন ভাবে বিত্তশালী নতুন মালিকের অধীনে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি, চেলসি, পিএসজির মতো ক্লাব বদলে গিয়েছে সে ভাবেই নিউক্যাসেলও বদলে যাবে এমনটাই আশা সকলের। সেই বদলের শুরুটা তারা করে দিল কোচ ছাঁটাইয়ের মধ্য দিয়েই।

নতুন মালিকের কোচ হিসেবে না পসন্দ স্টিভ ব্রুসকে। তবে এই ভাবে ব্রুসকে সরিয়ে দেওয়া হতে পারে, তা হয়তো আন্দাজ করা যায়নি। তবে মালিকানা বদলের পরে ব্রুস নিজেও নিজের চাকরি নিয়ে চিন্তায় ছিলেন, তা বলাই বাহুল্য। কোচের ছাঁটাইয়ের বিষয়টি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে নিশ্চিত করেছে নিউক্যাসেল।

উল্লেখ্য গত ১৭ই অক্টোবর টটেনহ্যামের বিপক্ষে ঘরের মাঠে নিউক্যাসেল হেরেছিল ৩-২ গোলে। সেই হারা ম্যাচে একটি মাইলফলকও ছুঁয়েছিলেন ব্রুস। কোচ হিসেবে নিজের ক্যারিয়ারের ১০০০তম ম্যাচে ডাগআউটে সে দিন নিউক্যাসেল ক্লাবের বেঞ্চে ছিলেন তিনি। ২০১৯ সালের জুলাইয়ে নিউক্যাসেলের দায়িত্ব নেওয়ার পর ক্লাবের কোচ হিসেবেও ১০০ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করেছিলেন তিনি।

নিউক্যাসেল জানিয়েছে পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতেই দায়িত্ব ছেড়েছেন ব্রুস। আপাতত নতুন কোনও প্রধান কোচ নিয়োগ করার ইচ্ছে নেই নিউক্যাসেলের। ব্রুসের সহকারী গ্রায়েম জোন্সকে ভারপ্রাপ্ত ম্যানেজার হিসেবে দেওয়া হয়েছে দায়িত্ব। ছাঁটাইয়ের ক্ষতিপূরণ বাবদ ব্রুসকে ৮০ লাখ পাউন্ড দেওয়া হচ্ছে। আপাতত লিগের পয়েন্ট তালিকায় ১৯তম স্থানে রয়েছে ক্লাব। ফলে তাদের উপরে ঝুলছে অবনমনের খাড়া।

বন্ধ করুন