বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > East Bengal FC: চাকরি গিয়েছে কনস্ট্যান্টাইনের ডেপুটির, এ বার ব্রিটিশ কোচের পালা?

East Bengal FC: চাকরি গিয়েছে কনস্ট্যান্টাইনের ডেপুটির, এ বার ব্রিটিশ কোচের পালা?

স্টিফেন কনস্ট্যান্টাইন।

সুপার কাপের আগে ইস্টবেঙ্গলের বোর্ড মিটিং ডাকা হবে। আর সেই মিটিংয়েই স্টিফেনের ভাগ্য নির্ধারিত হবে। তবে তার আগে কনস্ট্যানটাইনের সহকারীকে সরিয়ে দিল লাল-হলুদ কর্তারা। মরশুম শেষ পর্যন্ত পোরহালুর সিগিয়ারসন চুক্তি থাকলেও, সুপার কাপের আগেই ছাঁটা হল তাঁকে। 

ইস্টবেঙ্গলের কোচ হিসেবে স্টিফেন কনস্ট্যান্টাইনের অধ্যায় কি শেষের পথে? সে রকমই সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ব্রিটিশ কোচের ভাগ্য এখন সুতোর মাঝে ঝুলে। তবে ইতিমধ্যে স্টিফেনের ডেপুটি পোরহালুর সিগিয়ারসনকে ছেঁটে ফেলা হয়েছে। আর এতেই স্টিফেনের ভবিষ্যত নিয়ে জল্পনা তীব্র হয়েছে। অনেকেরই দাবি, এ ভাবেই স্টিফেনের কাছে কড়া বার্তা পৌঁছতে চেয়েছেন লাল-হলুদ কর্তারা।

আগেই শোনা গিয়েছিল, সুপার কাপের আগে ইস্টবেঙ্গলের বোর্ড মিটিং ডাকা হবে। আর সেই মিটিংয়েই স্টিফেনের ভাগ্য নির্ধারিত হবে। তবে তার আগে কনস্ট্যানটাইনের সহকারীকে সরিয়ে দিল লাল-হলুদ কর্তারা। মরশুম শেষ পর্যন্ত পোরহালুর সিগিয়ারসন চুক্তি থাকলেও, সুপার কাপের আগেই ছাঁটা হল তাঁকে।

আরও পড়ুন: EBFC vs ATK MB: আটে ৮- স্লাভকো, পেত্রাতোসের গোলে জিতে তিনে শেষ করল মোহনবাগান

লাল-হলুদের চাকরি খুইয়ে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় সিগিয়ারসন লেখেন, ‘কলকাতায় কোচিংয়ের দারুণ অভিজ্ঞতার পর ভারতকে বিদায় জানানোর সময় হয়ে এসেছে। আমাকে এই সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। আইএসএলে ইমামি ইস্টবেঙ্গলের সহকারী কোচ হিসেবে আমি প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করেছি। সেই সমস্ত মুহূর্তগুলো সঙ্গে নিয়ে ফিরে যাচ্ছি। ক্লাব এবং ফ্যানদের জন্য শুভেচ্ছা রইল। আশা করব, আগামী বছর ক্লাবের জন্য ভালো হবে এবং প্রথম ছয়ে শেষ করতে পারবে। ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত সকলকে ধন্যবাদ। আমাকে কাজের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনকে বিশেষ ধন্যবাদ। এই অভিজ্ঞতা এবং স্মৃতি নিয়েই আমি পরের চ্যালেঞ্জের দিকে এগোব।’

আরও পড়ুন: মার্চে ইস্টবেঙ্গলের বোর্ড মিটিং, সেখানেই নির্ধারিত হতে কনস্ট্যান্টাইনের ভাগ্য

তবে ক্লাবের এক সূত্রের থেকে জানা গিয়েছে, ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চুক্তি ছিল কনস্ট্যান্টাইনের ডেপুটির। তবে তাঁর সঙ্গে আর চুক্তি না বাড়ানোয় কনস্ট্যান্টাইনের কিন্তু চাপ বাড়ল। তাঁকে তবে লাল-হলুদ কি ছেঁটে ফেলার পথে? সে ক্ষেত্রে সুপার কাপের আগেই সিদ্ধান্ত হয়ে যেতে পারে। সুপার কাপ শেষেই হয়তো কোপ পড়তে পারে কনস্ট্যানটাইনের উপরও।‌ এখনও পর্যন্ত অবশ্য সেই বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। তবে কনস্ট্যান্টাইনে একেবারে সন্তুষ্ট নন ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। শুধু লাল-হলুদের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য নয়, স্টিফেনের লাগামহীন কথাবার্তা, টিম গঠন নিয়ে কর্তাদের সরাসরি আক্রমণ করে ‘কিপটে’ বলা, এই সব কিছুই কিন্তু ব্রিটিশ কোচের বিরুদ্ধে যাচ্ছে।

স্টিফেন প্রসঙ্গে ইস্টবেঙ্গলের সিইও নম্রতা পারেখ বলেন, ‘বিনিয়োগকারীরা ভুয়ো খবর বা জল্পনায় প্ররোচিত হতে চায় না। সব কিছু নিশ্চিত হওয়ার পরেই আমরা ঘোষণা করায় বিশ্বাসী। আমরা কিছু ঘোষণার জন্য যখন প্রস্তুত হব, তখন করব। তার মানে এই নয় যে, পর্দার পেছনে কোনও কাজ চলছে না। এই পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার জন্য সবাই আপ্রাণ চেষ্টা করছে।’ লাল-হলুদ সিইও-র বক্তব্য কিন্তু বেশ ইঙ্গিতবহ।

রোহিতদের প্রস্তুতির রোজনামচা, পাল্লা ভারি কোন দলের, ক্রিকেট বিশ্বকাপের বিস্তারিত কভারেজ, সঙ্গে প্রতিটি ম্যাচের লাইভ স্কোরকার্ড । দুই প্রধানের টাটকা খবর, ছেত্রীরা কী করল, মেসি থেকে মোরিনহো, ফুটবলের সব আপডেট পড়ুন এখানে।

বন্ধ করুন