বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবলের মহারণ > Iran in FIFA WC: বিশ্বকাপের মঞ্চে ইরান সরকারের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ ফুটবল দলের, ‘হিজাব বিরোধীদে’র সমর্থন অধিনায়কের

Iran in FIFA WC: বিশ্বকাপের মঞ্চে ইরান সরকারের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ ফুটবল দলের, ‘হিজাব বিরোধীদে’র সমর্থন অধিনায়কের

ইরান জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক এহসান হাজসাফি। (ছবি  - এএফপি)

ইরান জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক এহসান হাজসাফি জানিয়ে দেন, হিজাব বিরোধী আন্দোলনকারীদের প্রতি দলের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। বিশ্বকাপের মঞ্চে তাঁর এই ধরনের সাহসী মন্তব্যকে অেকেই কুর্নিশ জানিয়েছে।

অনেকেই মনে করেন রাজনীতি থেকে খেলাধুলোকে আলাদা রাখা উচিত। তবে এর বিপরীত মতও রয়েছে। অনেকেই মনে করেন খেলার মঞ্চ ব্যবহার করে সামাজিক সমস্যা দূর করার বার্তা দেওয়া যায়। এই আবহে এবার ইরানের পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্বকাপের মঞ্চে মুখ খোলার সিদ্ধান্ত নিলেন সেদেশের জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক এহসান হাজসাফি। ৩২ বছর বয়সি খেলোয়াড় বলেন, ‘যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাঁদের প্রতি দলের সমর্থন রয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের মানতে হবে যে আমাদের দেশের পরিস্থিতি ঠিক নেই এবং আমাদের জনগণ সুখী নয়।’

আজ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে ইরান। তার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে ইরানের অধিনায়ক বলেন, ‘অন্য কোনও কিছুর আগে, আমি ইরানে শোকাহত পরিবারের সকলের প্রতি সমবেদনা জানাতে চাই।’ এরপর তিনি বলেন, ‘তাদের জানা উচিত যে আমরা তাঁদের সাথে আছি, আমরা তাঁদের সমর্থন করি এবং তাঁদের প্রতি সহানুভূতিশীল।’ প্রসঙ্গত, এর আগে নিজেদের দেশের জনগণের ওপর অত্যাচার চালানোর কারণে বিশ্বকাপ থেকে ইরানকে নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছিলেন সেদেশের জনগণেরই একাংশ। কিন্তু ফিফা সেই পথে হাঁটেনি। আর এবার বিশ্বকাপের মঞ্চকে ব্যবহার করেই আন্দোলকারীদের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করলেন অধিনায়ক এহসান।

এহসান বলেন, ‘আমরা বর্তমান পরিস্থিতিকে অস্বীকার করতে পারি না। আমার দেশের পরিস্থিতি ভালো নয় এবং খেলোয়াড়রাও এটা জানে। আমরা এখানে আছি কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে আমরা তাঁদের (প্রতিবাদী) কণ্ঠস্বর হতে পারি না, বা তাদের সম্মান করা উচিত নয়। আমাদের যা কিছু আছে তা তাঁদের কাছ থেকেই পাওয়া। আমাদের লড়াই করতে হবে। আমাদের যথাসাধ্য পারফর্ম করতে হবে। এবং গোল করতে হবে। এবং ইরানের সাহসী জনগণকে জয় এনে দিতে হবে। এবং আমি আশা করি, জনগণের প্রত্যাশা মতো পরিস্থিতি পরিবর্তিত হবে।’

উল্লেখ্য, বর্তমান ইসলামিক প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে রাস্তায় নেমেছেন ইরানের লক্ষ লক্ষ মানুষ। এখনও পর্যন্ত ইরানি সরকারের অত্যাচারে ৪০০ জন প্রতিবাদীর মৃত্যু হয়েছে। গ্রেফতার হয়েছে ১৬,৮০০ জনেরও বেশি। এই গোটা পরিস্থিতির নেপথ্যে রয়েছে কুর্দিশ তরুণী মাসা আমিনির মৃত্য। এরপর থেকেই হিজাব বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল হয়েছে সেই দেশ। তিন মাসেও এই ‘বিদ্রোহ’ দমন করতে পারেনি ইরানের সরকার। এবার সেই বিদ্রোহের আঁচ এসে পড়ল বিশ্বকাপের মঞ্চে।

বন্ধ করুন