বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > চোটের কবলে একাধিক বিদেশি, বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে ভাঙাচোরা ইস্টবেঙ্গলের লড়াইয়ে গর্বিত অন্তর্বর্তী কোচ রেনেডি
ম্যাচ শেষে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন এসসি ইস্টবেঙ্গলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ রেনেডি সিং। ছবি- টুইটার (@IndSuperLeague)।
ম্যাচ শেষে সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন এসসি ইস্টবেঙ্গলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ রেনেডি সিং। ছবি- টুইটার (@IndSuperLeague)।

চোটের কবলে একাধিক বিদেশি, বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে ভাঙাচোরা ইস্টবেঙ্গলের লড়াইয়ে গর্বিত অন্তর্বর্তী কোচ রেনেডি

  • ম্যাচের প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকেই তিন পয়েন্টের সুযোগ নষ্ট করে ইস্টবেঙ্গল।

হায়দরাবাদ ম্যাচে দুরন্ত লড়াইয়ের কেটেছে ১২ দিন, বদলেছে কোচ। তবে গত ম্যাচের মতোই একই ফলাফলে বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধেও ড্র করল ইস্টবেঙ্গল। দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ রেনেডির অধীনে গোটা ম্যাচ অক্লান্ত পরিশ্রম এবং প্রায় নির্ভুল ডিফেন্সের মিশ্রণে এক নাছোড় লড়াই দেখা গেল লাল-হলুদের তরফে।

ম্যাচের ২৮ মিনিটেই সেম্বয় হাওকিপ নিজের প্রাক্তন দলের বিরুদ্ধে হেডারে গোল করে ইস্টবেঙ্গলকে এগিয়ে দেন। তবে প্রথমার্ধে লিড নিয়ে মাঠ ছাড়লেও দ্বিতীয়ার্ধের ১০ মিনিটের মাথায় দুর্ভাগ্যক্রমে সৌরভ দাসের আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফিরে আসে বেঙ্গালুরু। তবে বাকি ৩৫ ও ইনজুরি টাইমে বারবার আদিল প্রাচীরের সামনে আটকে যায় সুনীল ছেত্রীরা। বহুদিন পরে ফিট হয়ে দলের প্রথম ১১-তে সুযোগ পেয়েই ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন আদিল।

অভিজ্ঞ ভারতীয় ডিফেন্ডারের ফিটনেস নিয়ে চিন্তায় থাকলেও নিজে ভুল প্রমাণিত হওয়ায় খুশি রেনেডি। ম্যাচের পর তিনি জানান, ‘আমি ওকে নিয়ে খুবই চিন্তায় ছিলাম। ও অনেকদিন পরে লম্বা চোট সারিয়ে মাঠে নামছিল। আমরা সকলেই আদিলের দক্ষতা সম্পর্কে অবগত। কিন্তু দীর্ঘদিন চোটের পর পুরো ম্যাচ খেলা একেবারেই সহজ হয় না। তবে ও আমায় আজ ভুল প্রমাণিত করেছে। ও দেখিয়ে দিয়েছে ও কী করতে সক্ষম। আমার মতে আজ আদিল সত্যিই দারুণ খেলেছে।’

বিগত ছয়দিন ধরে ম্যানুয়েল দিয়াজের বিদায়ের পরে রেনেডির অধীনেই অনুশীলন করেছে লাল-হলুদ শিবির। নতুন কোচ মারিয়ো রিভেরা নিভৃতবাস কাটিয়ে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার আগে তিন ম্যাচ দলের দায়িত্বে থাকবেন রেনেডি। অনুশীলনে সব পরিস্থিতিতেই নিজেদের শেপ যাতে ফুটবলাররা ধরে রাখতে পারেন, সেই বিষয়েই কাজ করেছেন বলে জানান রেনেডি। পাশাপাশি দলের আরও উন্নতির প্রয়োজন তা স্বীকার করে নিলেও একগুচ্ছ বিদেশিদের অনুপস্থিতিতে ফুটবলারদের লড়াইয়ে রেনেডি গর্বিত বলেও জানান।

‘প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দল কোনোভাবেই নিজেদের শেপ নষ্ট করেনি, একজোট হয়ে লড়েছে। ওরা (বেঙ্গালুরু) তো গোটা ম্যাচ মাত্র একটাই বড় সুযোগ তৈরি করতে পেরেছে। কিন্তু আমরা তিনটি সুযোগ তৈরি করে একটির থেকে গোলও করি। আরও গোল করতে পারতাম, তবে আমাদের যে দল রয়েছে এবং যে পরিমাণ বিদেশি ফুটবলার মাঠের বাইরে রয়েছে, তাতে অত্যাধিক আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলাটাও চাপ। কিন্তু মাঠে উপস্থিত সকল ফুটবলার যেভাবে লড়েছে তাতে আমি গর্বিত।’ মত প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়কের।

বন্ধ করুন