বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > ATK MB-র সঙ্গে SC EB-র মানের তফাৎ অনেকটাই বেশি, মেনে নিলেন দিয়াজ
দলের পারফরম্যান্সে হতাশ দিয়াজ।
দলের পারফরম্যান্সে হতাশ দিয়াজ।

ATK MB-র সঙ্গে SC EB-র মানের তফাৎ অনেকটাই বেশি, মেনে নিলেন দিয়াজ

  • ডার্বিতে হারের পর লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ কার্যত মেনেই নিয়েছেন তাঁর দলের সঙ্গে এটিকে মোহনবাগানের মানের তফাৎ অনেকটাই। পাশাপাশি তাঁর দলের ছেলেরা যে একাধিক গুরুতর ভুল করে শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে জিততে সাহায্য করেছেন, সে কথা স্বীকার করতেও দ্বিধা করেননি হতাশ দিয়াজ।

প্রথম ম্যাচে জামশেদপুর এফসি-র বিরুদ্ধে ১-০ এগিয়ে গিয়েও, ১-১ ড্র করেছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। পরের ম্যাচেই ডার্বিতে এটিকে মোহনবাগানের কাছে একেবারে ৩-০ নাস্তানাবুদ হয়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড। স্বাভাবিক ভাবেই মারাত্মক চাপে পড়ে গিয়েছে ম্যানুয়েল দিয়াজের টিম। তবে ডার্বিতে হারের পর লাল-হলুদের স্প্যানিশ কোচ কার্যত মেনেই নিয়েছেন তাঁর দলের সঙ্গে এটিকে মোহনবাগানের মানের তফাৎ অনেকটাই। পাশাপাশি তাঁর দলের ছেলেরা যে একাধিক গুরুতর ভুল করে শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে জিততে সাহায্য করেছেন, সে কথা স্বীকার করতেও দ্বিধা করেননি হতাশ দিয়াজ।

ডার্বিতে হারের পর ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে দিয়াজ যা বললেন:

এটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে নিজের দলের মানের তফাৎ রয়েছে, মেনে নিলেন দিয়াজ

‘আমাদের বিরুদ্ধে খুবই ভাল একটা দল নেমেছিল আজ। প্রতিপক্ষ হিসেবে বেশ কঠিন। যার ফলে পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলা আমাদের পক্ষে বেশ কঠিন হয়ে ওঠে।’

ভুলের মাশুল দিয়েছে লাল-হলুদ

‘আমাদের ছেলেরা একাধিক গুরুতর ভুল করেছে। এ রকম দুর্দান্ত ও বিপজ্জনক একটা দলের বিরুদ্ধে এ রকম ভুল করলে তো চলে না। আমরা আমাদের খেলাটা খেলতেই পারিনি।’

হুগোকে আটকাতে ব্যর্থ টিম

‘বিপক্ষের খেলোয়াড়দের সঙ্গে আমাদের খেলোয়াড়দের দূরত্ব সব সময়ই ছিল। হুগো বৌমাসের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা সে রকমই হয়েছে। ওর কাছাকাছিই পৌঁছনোর সুযোগই বেশি পায়নি আমাদের ছেলেরা।’

সমর্থকদের বার্তা

‘আমরা সমর্থকদের কষ্টটা বুঝতে পারছি। তবে এই মুহূর্তে এটিকে মোহনবাগান ও এসসি ইস্টবেঙ্গলের মধ্যে অনেকটা ফারাক আছে। আর এটাই বাস্তব।’

বন্ধ করুন