বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > Wife praises Litton Das: ‘হরে কৃষ্ণ, তুমি সেরাটা পাওয়ার যোগ্য’, বাংলাদেশের লিটনের ইনিংসে গর্বিত স্ত্রী

Wife praises Litton Das: ‘হরে কৃষ্ণ, তুমি সেরাটা পাওয়ার যোগ্য’, বাংলাদেশের লিটনের ইনিংসে গর্বিত স্ত্রী

ভারতের বিরুদ্ধে বিধ্বংসী লিটন দাস (বাঁদিকে, ছবি সৌজন্যে এএফপি), স্ত্রী'র সঙ্গে প্রেম লিটনের (ডানদিকে, ফাইল ছবি, সৌজন্যে ফেসবুক LD Sonchita)

Wife praises Litton Das: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচের পর ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিটনের একটি ছবি পোস্ট করেন স্ত্রী সঞ্চিতা। তাতে দেখা গিয়েছে, একটি সোফার (সম্ভবত সিংহাসনের মতো বোঝানো হয়েছে) মতো জায়গায় বসে আছেন লিটন।

জিততে পারেনি বাংলাদেশ। তবে ভারতের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে লিটন দাস যে ইনিংস খেলেছিলেন, সেটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে অন্যতম সেরা মুহূর্ত হয়ে থাকবে। যে ইনিংসে মুগ্ধ হয়েছেন লিটনের স্ত্রী দেবশ্রী বিশ্বাস সঞ্চিতাও। স্বামীর প্রতি গর্ববোধের পাশাপাশি সঞ্চিতার আশাপ্রকাশ করেছেন, খুব শীঘ্রই সবদিক থেকে ‘সেরা’ জিনিস পাবেন লিটন।

গত বুধবার বাংলাদেশ ম্যাচের পর নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিটনের একটি ছবি পোস্ট করেন স্ত্রী সঞ্চিতা। তাতে দেখা গিয়েছে, একটি সোফার (সম্ভবত সিংহাসনের মতো বোঝানো হয়েছে) মতো জায়গায় বসে আছেন লিটন। উপরে লেখা আছে, 'একটি ক্যালেন্ডার বর্ষে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক - লিটন দাস (২০২২)।' সেই ছবির সঙ্গে সঞ্চিতা লিখেছেন, ‘সময়ের উপর ভরসা রাখ। তোমার জন্য গর্বিত প্রিয় স্বামী। তুমি সব ক্ষেত্রে সেরাটা পাওয়ার যোগ্য এবং আশা করছি যে সেটাও তুমি পাবে। হরে কৃষ্ণ।’

উল্লেখ্য, বুধবার অ্যাডিলেড ওভালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে ভারতের বিরুদ্ধে ঝড় তুলেছিলেন লিটন। যে ভারতীয় পেসাররা এবারের বিশ্বকাপে পাওয়ার প্লে'তে উইকেট ছাড়া ফেরেননি, তাঁদের শাসন করেছিলেন। তাঁর ব্যাট থেকে কোনও শট এলেই যেন সেটা চার বা ছক্কা হচ্ছিল। এমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল যে পাওয়ার প্লে'র শেষে বাংলাদেশের স্কোর যখন বিনা উইকেটে ৬০ রান ছিল, তখন লিটন একাই ২৪ বলে ৫৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। অপর ওপেনার নাজমুল শান্ত ১২ বলে চার রান করেছিলেন।

আরও পড়ুন: IND vs BAN DLS Confusion: DLS শিটে ১৬ ওভারে ১৩৩ লেখা, তাহলে কেন ১৫১ তাড়া করল বাংলাদেশ? উত্তর লুকিয়ে নিয়মে

লিটনের সেই বিধ্বংসী ইনিসের সৌজন্যেই অষ্টম ওভার শুরুর ঠিক আগে যখন বৃষ্টির জন্য খেলা সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যায়, সেইসময় বাংলাদেশ ১৭ রানে এগিয়ে ছিল। অর্থাৎ বৃষ্টির জন্য ফের খেলা শুরু করা না গেলে ১৭ রানে ভারতকে হারিয়ে দিত বাংলাদেশ। সেইসময় সাত ওভারে বাংলাদেশের স্কোর ছিল বিনা উইকেটে ৬৬ রান। ২৬ বলে ৫৯ রানে অপরাজিত ছিলেন বাংলাদেশের তারকা ওপেনার।

আরও পড়ুন: Shakib Al Hasan's reaction: বাংলাদেশের নদী নিয়ে ‘উত্তেজিত’ হয়ে কথা বলছিলেন আম্পায়ারের সঙ্গে? বাউন্সার শাকিবকে

তবে বৃষ্টির বিরতির খেলা শুরু হওয়ার পরই রান-আউট হয়ে যান লিটন। দু'রান নেওয়ার পা পিছলে গিয়েছিল। কেএল রাহুলের ডিরেক্ট থ্রোয়ে ২৭ বলে ৬০ রান করে (সাতটি চার এবং তিনটি ছক্কা, স্ট্রাইক রেট ২২২.২২) তাঁকে প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয়েছিল। কিন্তু তিনি যে ভিত্তি তৈরি করে দিয়ে গিয়েছিলেন, সেটার সদ্ব্যবহার করতে পারেননি শাকিব আল হাসানরা। বরং পরপর উইকেট হারিয়ে শেষপর্যন্ত বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ডিএলএস নিয়মে পাঁচ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ। তাতে অবশ্য লিটনের ইনিংসের মাধুর্য ছিটেফোঁটা কমেনি।

বন্ধ করুন