বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs SA: ‘যেভাবে ছেলেরা খেলেছে তাতে আমি খুব গর্বিত’: শিখর ধাওয়ান

IND vs SA: ‘যেভাবে ছেলেরা খেলেছে তাতে আমি খুব গর্বিত’: শিখর ধাওয়ান

সাংবাদিক সম্মেলনে শিখর ধাওয়ান (ছবি-পিটিআই) (PTI)

শিখর ধাওয়ান ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন, ‘যেভাবে ছেলেরা খেলেছে আমি তাতে খুব গর্বিত। যেভাবে স্যামসন, শ্রেয়স এবং শার্দুল খেলল তা এক কথায় অনবদ্য। আমি মনে করি ২৫০ রান অত্যন্ত বেশি রান। কারণ উইকেটে বল যথেষ্ট ঘুরছিল। এছাড়াও বল যথেষ্ট সিম করছিল।’

শুভব্রত মুখার্জি : লখনউতে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। শিখর ধাওয়ানের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলকে ৯ রানে হারিয়ে সিরিজে ইতিমধ্যেই ১-০ লিড নিয়ে নিয়েছে তেম্বা বাভুমার নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকা দল। টানটান উত্তেজনার ম্যাচে শেষ পর্যন্ত লড়াই করেও হারতে হল ভারতকে। সঞ্জু স্যামসন একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলে ভারতকে লড়াইতে টিকিয়ে রাখলেও, শেষ পর্যন্ত হার মানতে হল তাদের। ম্যাচ শেষে অধিনায়ক শিখর ধাওয়ান জানিয়ে দিলেন যে লড়াইটা ছেলেরা করেছে তাতে তিনি গর্বিত।

শিখর ধাওয়ান ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন, ‘যেভাবে ছেলেরা খেলেছে আমি তাতে খুব গর্বিত। যেভাবে স্যামসন, শ্রেয়স এবং শার্দুল খেলল তা এক কথায় অনবদ্য। আমি মনে করি ২৫০ রান অত্যন্ত বেশি রান। কারণ উইকেটে বল যথেষ্ট ঘুরছিল। এছাড়াও বল যথেষ্ট সিম করছিল। কারণ ফিল্ডিংয়ের সময়তে আমরা বেশ‌ কিছু রান অতিরিক্ত দিয়ে ফেলেছি। বলা ভালো রান আটকাতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। তবে এই অভিজ্ঞতাটা আমাদের খুব কাজে আসবে। নতুন ছেলেদের জন্য এটাও খুব বড় শিক্ষা।’

আরও পড়ুন… Sanju Samson makes a blunder: ৩৯তম ওভারে ১ বলও খেললেন না, সুযোগ পেয়েও স্ট্রাইক দিলেন আবেশকে, ‘ব্রেনফেড’ সঞ্জুর

এ দিন প্রথমে ব্যাট করে দক্ষিণ আফ্রিকা দল ৪০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৪৯ করে। এদিন শুরুটা খুব ধীরে শুরু করেছিল প্রোটিয়া ব্যাটাররা। জানেমান মালান ৪২ বলে ২২ রান করেন। মালানকে এদিন একেবারেই ব্যাট হাতে ছন্দে মনে হয়নি। অপর ওপেনার কিপার ব্যাটার কুইন্টন ডি'কক করেন ৫৪ বলে ৪৮ রান। এরপর পরপর দুটি উইকেট হারায় প্রোটিয়া বাহিনী। তারপরেই ২২ গজে জুটি বাঁধেন হেনরিক ক্লাসেন এবং ডেভিড মিলার। এই দুই ব্যাটার এদিন আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে খেলা শুরু করেন। দুজনেই অপরাজিত অর্ধশতরান করেন। হেনরিক ক্লাসেন ৬৫ বলে ৭৪ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেন। মিলার ৬৩ বলে ৭৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। 

আরও পড়ুন… জাদেজা মনে করালেন, ওয়াকারকে ছাড়াই বিশ্বকাপ জিতেছিল পাকিস্তান, তবে কি এবার বুমরাহকে ছাড়াই ট্রফি আসবে ভারতে?

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারতের ব্যাটিং বিপর্যয় ঘটে। মাত্র ৫১ রানেই পড়ে যায় চার উইকেট। শ্রেয়স আইয়ার ৩৭ বলে ৫০ রান করে ভারতকে লড়াইতে ফেরান। ৬৩ বলে ৮৬ রানের একটি অনবদ্য অপরাজিত ইনিংস খেলে ভারতকে প্রায় জয়ের দোড়গোড়ায় পৌছে দিয়েছিলেন সঞ্জু স্যামসন। শার্দুল ঠাকুর ৩১ বলে ৩৩ রান করে সঞ্জুকে যোগ্য সঙ্গত দিয়েছিলেন। তবে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য থেকে ৯ রান দূরেই থেমে যায় ভারতের ইনিংস।

বন্ধ করুন