বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: ভারতে অত্যন্ত ক্লান্তিকর, আমিরশাহিতে ঝক্কি নেই, বিশেষ কারণে খুশি মরিস
রান-আউট করছেন মরিস। ছবি- আইপিএল।
রান-আউট করছেন মরিস। ছবি- আইপিএল।

IPL 2020: ভারতে অত্যন্ত ক্লান্তিকর, আমিরশাহিতে ঝক্কি নেই, বিশেষ কারণে খুশি মরিস

  • করোনা মহামারির জন্য এবছর ভারত থেকে আমিরশাহিতে IPL সরে যাওয়া শাপে বর হয়েছে বলে মনে করছেন RCB-র তারকা অল-রাউন্ডার।

করোনা মহামারির জন্য এবছর ভারতের পরিবর্তে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ। এতে আর কেউ খুশি হোন না হোন, ক্রিস মরিশ বেজায় খুশি। আরসিবির তারকা অল-রাউন্ডার স্পষ্ট জানালেন, ভারতে আইপিএল খেলতে এসে এক শহর থেকে অন্য শহরে ঘুরে বেড়ানোর অভিজ্ঞতা মোটেও সুখকর নয়। সেদিক থেকে আমিরশাহিতে সেই ধকল নেই। মনেই হচ্ছে না ভিন্ন কেন্দ্রে ঘুরে বেড়াতে হচ্ছে বলে।

আমিরশাহির তিনটি মাঠ খুব দূরে অবস্থিত নয়। ফলে অনায়াসে যাতায়াত করা সম্ভব। তবে ভারতে সেটা সম্ভব নয়। আটটি ফ্র্যাঞ্চাইজির হোম গ্রাউন্ড ভিন্নি ভিন্ন শহরে। দু-এক দিনের ব্যবধানে ম্যাচ খেলতে হওয়ায় একটা ম্যাচ শেষ করেই তড়িঘড়ি যাত্রা করতে হয় অন্য শহরে। মরিসের কথায়, ‘এটা অত্যন্ত ক্লান্তিকর এবং কার্যত সব শক্তি নিংড়ে নেয়।’

ভারত ও আমিরশাহির এই কেন্দ্র পরিবর্তনের পার্থক্য সম্পর্কে মরিস বলেন, ‘ভারতে (এক শহর থেকে অন্য শহরে) ঘুরে বেড়ানো মোটেও সহজ নয়, যতটা বাইরে থেকে দেখে সহজ মনে হয়। এটা একেবারে নিংড়ে নেয়। মাঝ রাতে খেলা শেষ হয়। রাত ২টোর সময় হোটেলে পৌঁছে ব্যাগ গোছাতে বসতে হয় সকালেই শহর ছাড়তে হবে বলে।’

মরিস আরও বলেন, ‘এমনিতেই ম্যাচের পর আপনি ক্লান্ত থাকেন। তার উপর কয়েক ঘণ্টা পরেই হোটেল ছেড়ে বেরিয়ে পড়তে হয়। টিম বাসে বিমানবন্দরে যেতে আরও ঘণ্টা দেড়েক। প্লেন ধরো, অন্য শহরে পৌঁছও, তার পর দিন দু’য়েকের মধ্যেই আবার ম্যাচ খেলতে নামো। সব মিলিয়ে অত্যন্ত ক্লান্তকর।'

বন্ধ করুন