বাংলা নিউজ > ময়দান > PAK vs SL: লিড পেয়েও হারল লঙ্কা, গলে তিনশোর বেশি রান তাড়া করে রেকর্ড জয় বাবরদের
৪ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নিল পাকিস্তান।

PAK vs SL: লিড পেয়েও হারল লঙ্কা, গলে তিনশোর বেশি রান তাড়া করে রেকর্ড জয় বাবরদের

  • এর আগে গলে সফরকারী দল হিসেবে সব থেকে বেশি রান তাড়া করে টেস্ট জয়ের রেকর্ড ছিল ইংল্যান্ডের। ২০২১ সালে শেষ ইনিংসে ১৬৪ রান তুলে ম্যাচ জিতেছিল তারা। সেই অঙ্কের হিসেব এ বার বদলে দিল পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি সর্বকালের নজির গড়ে ফেললেন বাবর আজমরা।

গলে ৩০০-র বেশি রান তাড়া করে জয় ছিনিয়ে নিয়ে নতুন রেকর্ড গড়ে ফেলল পাকিস্তান। বুধবার ৪ উইকেটে শ্রীলঙ্কা হারিয়ে দেয় বাবর আজমের দল। এর আগে কোনও দলই এই মাঠে ৩০০ বা তার বেশি রান তাড়া করে জয় পায়নি।

এই মাঠে সব থেকে বেশি ২৬৮ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড রয়েছে শ্রীলঙ্কার। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে এমন নজির গড়েছিল আয়োজকরা।

আর সফরকারী দল হিসেবে এর আগে গলে সব থেকে বেশি রান তাড়া করে টেস্ট জয়ের রেকর্ড ছিল ইংল্যান্ডের। ২০২১ সালে শেষ ইনিংসে ১৬৪ রান তুলে ম্যাচ জিতেছিল তারা। সুতরাং, এর আগে গলে শেষ ইনিংসে ৩০০-র বেশি রান তাড়া করে কোনও দল টেস্ট জিততে পারেনি। সেই অঙ্কের হিসেব এ বার বদলে দিল পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি সর্বকালের নজির গড়ে ফেললেন বাবর আজমরা।

আরও পড়ুন: ৪০০-র বেশি বল খেলে নজির গড়লেন শাফিক, মজবুত করলেন পাকিস্তানের জয়ের পথ

গল টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড়সড় পুঁজি সংগ্রহ করে নেওয়া সম্ভব হয়নি শ্রীলঙ্কার পক্ষে। তবে ২২২ রান হাতে নিয়েই পাকিস্তানকে একসময় কোণঠাঁসা করে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। বাবর আজমের অধিনায়কোচিত শতরান (১১৯) পাকিস্তানকে বিপর্যয়ের হাত থেকে উদ্ধার করে। ১৪৮ রানে ৯ উইকেট থেকে পাকিস্তান শেষ পর্যন্ত প্রথম ইনিংসে ২১৮ রান করে। সুতরাং, প্রথম ইনিংসে নিরিখে ৪ রানের সংক্ষিপ্ত লিড পেয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

আরও পড়ুন: CWG-র অন্যতম আকর্ষণ ভারত-পাক লড়াই, হট কেকের মতো বিকোচ্ছে ক্রিকেট ম্যাচের টিকিট

তবে দ্বিতীয় ইনিংসে তুলনায় জমাট ব্যাটিং করে শ্রীলঙ্কা। তারা ৩৩৭ রানে অলআউট হয়। জয়ের জন্য পাকিস্তানের সামনে ৩৪২ রানের লিড রাখে লঙ্কা বাহিনী। আর সেই রান তাড়া করতে নেমে পাক দুর্গ আগলে কুম্ভ হয়ে ওঠেন আব্দুল্লাহ শাফিক। তিনি ৪০৮ বল খেলে ১৬০ রান করেন। উল্টোদিকে উইকেট পড়তে থাকলেও, শাফিক নিজে উইকেট আগলে পাকিস্তানকে ধীরেসুস্থে জয়ের পথে নিয়ে যান।

শাফিক ছাড়া বাবর আজম ৫৫ এবং মহম্মদ রিজওয়ান ৪০ করেছিলেন। দুই তারকাকেই ফেরান প্রভাত জয়সূর্য। পাকিস্তানের ৬ উইকেটের মধ্যে একাই ৪ উইকেট নেন জয়সূর্য। দুরন্ত ছন্দে বল করে দুই ইনিংস মিলিয়ে মোট ৯ উইকেট নেন শ্রীলঙ্কার নতুন জয়সূর্য। তবু তিনি শ্রীলঙ্কার হার আটকাতে পারলেন না।

বন্ধ করুন