বাংলা নিউজ > ময়দান > কীভাবে সামলেছেন ডোনাল্ডের বাউন্সার আক্রমণ, জানালেন সচিন
সচিন তেন্ডুলকর। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)
সচিন তেন্ডুলকর। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)

কীভাবে সামলেছেন ডোনাল্ডের বাউন্সার আক্রমণ, জানালেন সচিন

  • কীভাবে তা সামাল দিয়েছিলেন সেকথাই জানালেন সচিন। এক চ্যাট শো-তে কথা বলার সময় এই ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন সচিন।

শুভব্রত মুখার্জি: নিজের দীর্ঘ দুই দশকের ক্যারিয়ারে একাধিক কিংবদন্তি বোলারের বিরুদ্ধে খেলেছেন সচিন তেন্ডুলকর। ২৪ বছরের ক্যারিয়ারে প্রতিপক্ষের যেসব কঠিন বোলারদের তিনি খেলেছেন তাদের অন্যতম প্রোটিয়া পেসার অ্যালান ডোনাল্ড। একাধিক কঠিন থেকে কঠিনতম লড়াই লড়েছেন এই দুই কিংবদন্তি। কাল থেকে শুরু হচ্ছে ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট। তার আগেই স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে সচিন তেন্ডুলকর জানালেন কীভাবে সামলেছেন ডোনাল্ডের বাউন্সার আক্রমণ।

বিদ্যুৎগতির জন্য বিশ্ব ক্রিকেটে প্রসিদ্ধ ছিলেন ডোনাল্ড। প্রোটিয়াভূমে একটি টেস্টে রাউন্ড দি উইকেট বল করতে এসে ডোনাল্ড, সচিনকে লক্ষ্য করে একের পর এক বাউন্সার বল করেছিলেন এবং কীভাবে তা সামাল দিয়েছিলেন সেকথাই জানালেন সচিন। এক চ্যাট শো-তে কথা বলার সময় এই ঘটনার স্মৃতিচারণ করেন সচিন।

তিনি জানান 'অ্যালান ডোনাল্ড তার আক্রমনাত্মক বোলিংয়ের জন্য প্রসিদ্ধ ছিলেন। মাঠের বাইরে দারুণ এক মানুষ ডোনাল্ড। বর্তমান সময়ে ও আমরা খুব ভাল বন্ধু। আমি সেই বন্ধুত্বকে সম্মান করি। ওভার দি উইকেট বল করার সময় যদি কিছু না হত তাহলে ও রাউন্ড দি উইকেট থেকে আক্রমণ শুরু করত। আমার পাজর লক্ষ্য করে ও বোলিং শুরু করত। ওইভাবে ও আমাকে আউট করতে চাইত। সেই সময় আমি চিন্তা করেছিলাম যারা লম্বা ক্রিকেটার তারা বলের বাউন্সের উপরে খেলার চেষ্টা করে তাহলে যারা খর্বকায় ক্রিকেটার তারা তাদের উচ্চতা ব্যবহার করে বলের নিচে 'ডাক' করতে পারে। এই ভাবনার পরে আমি সেটাই করা শুরু করি।'

তিনি আরও বলেন 'আমি আমার সেন্টার অফ গ্রাভিটিকে লোয়ার করি। এরপর বলের নিচে যাওয়া শুরু করি। তবে মুখ বা বুকের পাঁজরের কাছে থাকা বলকে আমি এইভাবেই খেলতে শুরু করি। ব্যাপারটা অনেকটা সহজ হয়ে যায় এর ফলে। অ্যালান ডোনানল্ডের গতির জন্য ওকে 'হোয়াইট লাইটনিং' বলা হত। প্রচুর বাউন্স এবং গতিতে বল করতে পারত ডোনাল্ড। আমি তখন আত্মবিশ্বাসী ছিলাম বল গুড লেন্থে থাকলেও ওর নিচে গিয়ে খেলতে পারব।'

বন্ধ করুন