বাংলা নিউজ > ময়দান > ঋদ্ধিমানকে খেলার কোনও প্রস্তাবই দেয়নি গুজরাট-বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন
ঋদ্ধিমান সাহা। ফাইল ছবি

ঋদ্ধিমানকে খেলার কোনও প্রস্তাবই দেয়নি গুজরাট-বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন

  • বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারী অজিত লেলে এই মুহূর্তে আমেরিকাতে রয়েছেন। সেখান থেকে পিটিআইকে তিনি জানিয়েছেন 'গত একমাস ধরে আমি ভারতে নেই। তবে বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কথা বলতে গেলে বলতে পারি ইতিমধ্যেই আমরা প্রফেশনাল ক্রিকেটার আম্বাতি রায়াডুকে চুক্তিবদ্ধ করেছি।

শুভব্রত মুখার্জি: দেশের জার্সিতে ৪০ টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ফেলেছেন ভারতের উইকেট রক্ষক ব্যাটার ঋদ্ধিমান সাহা। সদ্য শেষ হওয়া আইপিএলেও বেশ ভালো পারফরম্যান্স ছিল তার। পরবর্তীতে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের (সিএবি) এক কর্মকর্তা বাংলার হয়ে খেলার সময় ঋদ্ধির কমিটমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। যাতে স্বাভাবিকভাবেই অপমাণিত বোধ করা ঋদ্ধিমান সাহা বাংলার হয়ে ভবিষ্যতে আর খেলতে চান না। সে কথা তিনি জনসমক্ষেও স্পষ্ট জানিয়েছেন। সিএবির থেকে তিনি এনওসিও চেয়েছেন এই বিষয়ে। এমন আবহে কোন রাজ্য অ্যাসোসিয়েশনের হয়ে ঋদ্ধি ক্রিকেটটা খেলতে পারেন তা নিয়ে জল্পনা দানা বেঁধেছিল। উঠে এসেছিল গুজরাট এবং বরোদার নাম। তবে দুই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের তরফেই বিষয়টি নাকচ করে দিয়ে জানানো হয়েছে কোনও রকম অফার তাদের তরফে ঋদ্ধিকে দেওয়া হয়নি।

সম্প্রতি সাহার তরফে দাবি করা হয়েছিল বেশ কয়েকটি রাজ্য অ্যাসোসিয়েশনের অফার রয়েছে তার কাছে। তবে তিনি এখনও এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেননি। গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের এক সিনিয়র কর্মকর্তা অনিল প্যাটেল সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, 'আমি নিশ্চিত করেই এটা বলতে পারা যে গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের তরফে ঋদ্ধিমান সাহার কাছে খেলার বিষয়ে কোনও অফার দেওয়া হয়নি। আমাদের একজন নবীন উইকেট রক্ষক রয়েছেন যার নাম হেত প্যাটেল। ও আমাদের হয়ে যথেষ্ট ভালো খেলেছে। কী কারণে আমরা ওর কেরিয়ারটা নষ্ট করব?'

বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারী অজিত লেলে এই মুহূর্তে আমেরিকাতে রয়েছেন। সেখান থেকে পিটিআইকে তিনি জানিয়েছেন 'গত একমাস ধরে আমি ভারতে নেই। তবে বরোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কথা বলতে গেলে বলতে পারি ইতিমধ্যেই আমরা প্রফেশনাল ক্রিকেটার আম্বাতি রায়াডুকে চুক্তিবদ্ধ করেছি। আমি যতদূর জানি আমাদের তরফে সাহার সঙ্গে কোনও রকম যোগাযোগ করা হয়নি। জানা গিয়েছে ত্রিপুরা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সাহার কথা হয়েছে। তবে ম্যাচ ফি বাদেও সাহা যে প্রফেশনাল ফি দাবি করেছেন তা ত্রিপুরা বোর্ডের পক্ষে দেওয়া সম্ভব নয় বলে স্পষ্ট জানানো হয়েছে তাকে।

বন্ধ করুন