বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > ‘‌ইলেকশন বন্ধ না হলে মিটিং মিছিল চলবেই’‌, কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।
বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

‘‌ইলেকশন বন্ধ না হলে মিটিং মিছিল চলবেই’‌, কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ

  • দুই প্রার্থী মলি পাল এবং পিয়ালী দেবীর সমর্থনে প্রচারে ভিড় হলে আসে পুলিশি বাধা। এমনকী গ্রেফতার করা হতে পারে বলে মাইকিং চলে।

এই নিয়ে তিনবার পুলিশি বাধার মুখে পড়লেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ। প্রথম দু’বার আসানসোলে বাধা পান। আর তৃতীয়বার বিধাননগরে পুরসভা নির্বাচনের প্রচারে পুলিশি বাধা পেলেন দিলীপ ঘোষ। কোভিড বিধিভঙ্গের অভিযোগে এই প্রচারে বাধা দেয় বিধাননগর পুলিশ। এমনকী মাইকিং করে দেওয়া হয় গ্রেফতারির হুঁশিয়ারিও। আর বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতির চ্যালেঞ্জ মিটিং–মিছিল তিনি করবেনই।

ঠিক কী ঘটেছে?‌ আজ, বৃহস্পতিবার সকালে বিধাননগর পুরসভা নির্বাচনের দুই বিজেপি প্রার্থীর প্রচারে যান দিলীপ ঘোষ। মুখে গেরুয়া মাস্ক পরলেও দিলীপের মিছিলে ছিল কর্মী–সমর্থকদের ভিড়। তাঁদের মধ্যে আবার অনেকে মুখে মাস্ক পরেননি। এই পরিস্থিতিতে তখনই অকুস্থলে আসে বিধাননগর পুলিশ। সল্টলেকেও দিলীপের প্রচারে বাধা দেওয়া হয়। ৩২ ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থীদের সমর্থনে এদিনের প্রচারে দিলীপ ঘোষ ছাড়া ছিলেন শমীক ভট্টাচার্য, রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়রা। দুই প্রার্থী মলি পাল এবং পিয়ালী দেবীর সমর্থনে প্রচারে ভিড় হলে আসে পুলিশি বাধা। এমনকী গ্রেফতার করা হতে পারে বলে মাইকিং চলে।

এই বিষয়ে কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ?‌ এদিন তিনি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, ‘‌ইলেকশন বন্ধ না হলে মিটিং মিছিল চলবেই। এখানে ওইসব নিয়মবিধি কেউ মানছেন না। পুরসভা নির্বাচনে বিভিন্ন দলের পতাকা, ফ্লেক্স ছিঁড়ে, ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের ঠিক আছে। সরকারি যে ঘোষণা তা নিজেই শাসক শিবির মানছে না। অথচ আমাদের বারবার আটকাচ্ছে। যদি তৃণমূল কংগ্রেস মনে করে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ভোট করে ফাঁকায় জিতে যাবে সেটা বিজেপি হতে দেবে না। ভোট যদি করা হয় তাহলে বিজেপি পুরো শক্তি নিয়ে নামবে’‌।

উল্লেখ্য, আসানসোলে গিয়ে দু’বার প্রচারে বাধা পান দিলীপ ঘোষ। সেখানেও অভিযোগ উঠেছিল কোভিড বিধি মেনে তিনি প্রচার করেছেন। যদিও দিলীপ তা অস্বীকার করেন। যদিও কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‌ওঁনারা বিধি মানছেন না। বারবার ওঁনাকে অনুরোধ করছি, সবাই কমিশনের নির্দেশ মানুন। আপনি মাওবাদী নন যে নির্বাচন মানেন না।’‌

বন্ধ করুন