বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বায়না করে চিপস নিয়ে বিপত্তি, খেলনা গুলি খেয়ে ফেলল ১৪ মাসের শিশু!
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

বায়না করে চিপস নিয়ে বিপত্তি, খেলনা গুলি খেয়ে ফেলল ১৪ মাসের শিশু!

  • কিছুক্ষণ পর হঠাৎ ঠাকুমা রুদ্রের জিভের ওপর একটি খেলনা গুলি দেখতে পান। গিলে ফেলার আগেই গুলিটি ফেলে দেন ঠাকুমা।

চিপসের প্যাকেটের মধ্যে ছিল প্লাস্টিকের খেলনা গুলি। আর সেই গুলি খেয়েই অসুস্থ হয়ে পড়ল ১৪ মাসের শিশু। জানতে পেরেই শিশুটিকে প্রথমে কৃষ্ণগঞ্জের গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কোনও সুরাহা হয়নি। শেষ পর্যন্ত শিশুটিকে কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে আসা হচ্ছে বলে খবর।

জানা গিয়েছে, নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের সত্যনগরের বাসিন্দা রাজীব মণ্ডলের ১৪ মাসের ছেলে রুদ্র চিপস খাওয়ার জন্য বায়না করছিল। সেই সময় পাশের দোকান থেকে একটি চিপসের প্যাকেট কিনে দেন ঠাকুমা। প্যাকেটটি ছিড়ে তার হাতে দিয়েও দেন। কিছুক্ষণ পর হঠাৎ ঠাকুমা রুদ্রের জিভের উপর একটি খেলনা গুলি দেখতে পান। গিলে ফেলার আগেই গুলিটি ফেলে দেন ঠাকুমা। এরপর প্যাকেট দেখে বুঝতে পারেন এর আগেও বেশ কয়েকটি গুলি খেয়ে ফেলেছে রুদ্র। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে কৃষ্ণগঞ্জ প্রাথমিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা শিশুটিকে ওষুধ দিয়ে পর্যবেক্ষণে রাখার পরামর্শ দেন। জানান, মলের সঙ্গে হয়ত সেগুলি বেরিয়েও যেতে পারে।

কিন্তু রাত কেটে গেলেও এই ধরনের কোনও ঘটনাই ঘটেনি। ফের এদিন গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে শিশুটির এক্স রে করে দেখা যায়, পাঁচটি গুলি পাকস্থলীতে আটকে রয়েছে। উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন শিশুটির পরিবারের লোকেরা। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়। উদ্বিগ্ন শিশুটির বাবা জানান, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, পাকস্থলীর মধ্যে খেলনা গুলি আটকে রয়েছে। কীভাবে যে কী করব কিছুই বুঝতে পারছি না। জানা গিয়েছে, যে চিপসের প্যাকেটটি রুদ্রকে কিনে দেওয়া হয়েছিল, তাতে গিফট হিসেবে খেলনা বন্দুক দেওয়া হয়েছিল। সেই সঙ্গে বন্দুকের গুলি দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন