বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > নাম না করে অনুব্রতকে বাহুবলী তকমা! বিতর্কে জড়ালেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য
 অনুব্রত মণ্ডল, তৃণমূলের জেলা সভাপতি   (ফাইল ছবি )
 অনুব্রত মণ্ডল, তৃণমূলের জেলা সভাপতি   (ফাইল ছবি )

নাম না করে অনুব্রতকে বাহুবলী তকমা! বিতর্কে জড়ালেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য

  • বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের একাংশকে চোর ও ধান্দাবাজ বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি। সূত্রের খবর এমনটাই।

বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না বিশ্বভারতীকে। এবার বিতর্কে জড়ালেন খোদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুুৎ চক্রবর্তী। সম্প্রতি কার্যত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এবার নাম না করে সেই অনুব্রতকেই নিশানা করলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য। সূত্রের খবর, নাম না করে অনুব্রতকে কার্যত বাহুবলী বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত ভবনের অধ্যক্ষ, বিভাগীয় প্রধান ও আধিকারিকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেছিলেন উপাচার্য। সেখানে একের পর এক অভিযোগ তোলেন উপাচার্য। কার্যত অনুব্রত মণ্ডলের জন্যই বিশ্বভারতীর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ তোলেন। এমনকী অনুব্রতর জন্যই চুরির অভিযোগ জানানো যাচ্ছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে। সূত্রের খবর এমনটাই। তবে শুধু এখানেই থেমে থাকেননি উপাচার্য। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকদের একাংশকে চোর ও ধান্দাবাজ বলেও কটাক্ষ করেছেন তিনি। সূত্রের খবর এমনটাই। একজন অধ্যাপকের চাকরি তাঁর দয়ায় হয়েছে বলেও দাবি করেছেন উপাচার্য। এরপরই এনিয়ে অধ্যাপকমহলেও শোরগোল পড়ে গিয়েছে। 

 

এদিকে বিশ্বভারতীতে চুরির অভিযোগ জানানোর ক্ষেত্রে দ্বিধায় রয়েছেন নিরাপত্তারক্ষীরা। এমনটাই নাকি দাবি করা হয়েছে উপাচার্যের তরফে। কারণ অনুব্রতর কাছে নাম চলে গেলে এলাকায় টেকা যাবে না। সেকারণে চুরি আটকাতে ভবনগুলিকে নিজেদের দায়িত্ব নিতে হবে বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়। 

 

বন্ধ করুন