বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Brick field labour dies in Uttar Dinajpur: কানে হেডফোন দিয়ে জেসিবি চালাচ্ছিল চালক, চাকায় পিষে গেলেন ইটভাটার শ্রমিক

Brick field labour dies in Uttar Dinajpur: কানে হেডফোন দিয়ে জেসিবি চালাচ্ছিল চালক, চাকায় পিষে গেলেন ইটভাটার শ্রমিক

জেসিবির চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু ইটভাটার শ্রমিকের। প্রতীকী ছবি

ফুল কুমার কাজ শেষে বাজার করে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় জেএসসিবি তাঁকে পিষে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে ইটভাটার ভিতরেই। কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর চালক জেসিবি রাখতে যাচ্ছিলেন। কানে হেডফোন থাকায় রাস্তার দিকে তাঁর সেরকম ভাবে খেয়াল ছিল না বলে অভিযোগ। 

জেসিবির চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হল ইটভাটার এক শ্রমিকের। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ থানার দুর্গাপুরে। মৃতের নাম ফুল কুমার নুনিয়া (৫৫)। কাজ শেষে তিনি বাজার করে ঘরে ফিরছিলেন। সেই সময় জেসিবি তাঁকে পিষে দেয়। এই ঘটনাটি কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। পরিবারের সদস্যরা দেহ আটকে রেখে বিক্ষোভ করেন। তাঁরা ক্ষতিপূরণের দাবি জানান। পাশাপাশি জেসিবি আটকে রাখেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। স্থানীয়দের অভিযোগ, কানে হেডফোন লাগিয়ে জেসিবি চালাচ্ছিলেন চালক। গাফিলতির জেরে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ফুল কুমার কাজ শেষে বাজার করে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় জেএসসিবি তাঁকে পিষে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে ইটভাটার ভিতরেই। কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর চালক জেসিবি রাখতে যাচ্ছিলেন। কানে হেডফোন থাকায় রাস্তার দিকে তাঁর সেরকম ভাবে খেয়াল ছিল না বলে অভিযোগ। তড়িঘড়ি স্থানীয়রা ফুল কুমারকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন ইটভাটার অন্যান্য শ্রমিকরা। তাঁদের বক্তব্য, ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে ফুল কুমারের। ঘটনার পরে জেসিবি চালক সেখান থেকে পালিয়ে যান।

এদিকে, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয়রা বিক্ষোভ দেখান। তারা ক্ষতিপূরণের দাবি জানান। ইটভাটার ম্যানেজার সুব্রত সরকার বলেন, তাঁরা মৃত শ্রমিকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ভাবনা চিন্তা করছেন। তিনি জানান, ইটভাটার কাজের জন্য জেসিবি ভাড়া করা হয়েছিল। কাজ শেষে জেসিবি রাখতে যাওয়ার সময় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে চালক পলাতক রয়েছেন। তাঁকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। জেসিবি মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি আসতে চাননি বলে জানা গিয়েছে। জেসিবি চালকের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। পাশাপাশি ফুলকুমারের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন