বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > এগরা বিস্ফোরণের নেপথ্যে একশো দিনের কাজ, টাকা না মেলায় বিকল্প পথে মানুষ!

এগরা বিস্ফোরণের নেপথ্যে একশো দিনের কাজ, টাকা না মেলায় বিকল্প পথে মানুষ!

তদন্ত করছে সিআইডি। (PTI)

একশো দিনের কাজের টাকা বকেয়া থাকা গ্রামীণ অর্থনীতিতে বড় প্রভাব ফেলেছে। সাহাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত সূত্রে খবর, ২০২১–২২ আর্থিক বছরে উপকরণ কেনা বাবদ ৫২ লক্ষ ৪ হাজার টাকা এবং অদক্ষ শ্রমিকদের মজুরি বাবদ ৩ লক্ষ ৭৬ হাজার টাকা বকেয়া আছে। আর ২০২২–২৩ আর্থিক বছরে বকেয়ার পরিমাণ ২ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক মন্ত্রী বারবার আওয়াজ তুলেছেন, একশো দিনের কাজ করেও গরিব মানুষ টাকা পাননি। কেন্দ্রীয় সরকার একশো দিনের কাজের টাকা আটকে রাখায় গ্রামীণ মানুষের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। তার সঙ্গে আছে জব কার্ড থাকলেও কাজ না পাওয়ার জ্বালা এবং অনেকের আবার জব কার্ড নেই। এইসব মানুষজনই দারিদ্রের সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন। যার সুযোগ নেয় কৃষ্ণপদ বাগ ওরফে ভানু। আর দারিদ্র কাটাতে এই গ্রামের মানুষজনই শ্রমিক হিসাবে বাজি কারখানায় কাজ করতে যান। টাকা রোজগার করতে গিয়ে তাঁদের প্রাণ গেল।

এদিকে এই কৃষ্ণপদ বাগ ওরফে ভানু বাম জমানা থেকে এখন পর্যন্ত নানা প্রভাব খাটিয়ে চালিয়ে গিয়েছে বৈধ লাইসেন্স ছাড়া বেআইনি বাজি কারখানা। গরিব মানুষকে টাকার টোপ দিয়ে এখানে নিয়ে আসা হতো। বিশেষ করে যাঁরা একশো দিনের কাজ করে টাকা পাননি বা দেনার দায়ে কোণঠাসা। এই ভানুর বাজি কারখানায় ১৯৯৫ সালে প্রথম বিস্ফোরণ ঘটে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছিল। ২০০১ সালের বিস্ফোরণে প্রাণ যায় ভানুর নিজের ভাই–সহ তিনজনের। তারপরও রমরমিয়ে চলেছে এই বাজি কারখানা। কেমন করে তা সম্ভব হল?‌ উঠছে প্রশ্ন।

ঠিক কী ঘটেছে এগরায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, গ্রামের গরিব মানুষজন যখন আর্থিক অনটনে ভুগছেন তখন সেই সুযোগটা নেয় ভানু। দৈনিক ৪০০ টাকা মজুরির টোপ দিয়ে বাজি কারখানায় কাজ করিয়ে নিত ভানু। আবার কেউ রাজি না হলে তাকে হুমকিও দেওয়া হয়েছে। কারণ কাজ করিয়ে সেই বাজি বা বোমা বাইরে চড়া দামে পাচার করা হতো। মঙ্গলবারের ভয়াবহ বিস্ফোরণে মৃত শ্যামশ্রী মাইতির ছেলে কৌশিক বলেন, ‘বাবা দিনমজুরি করেন। আমার পড়ার খরচ জোগাড় করতেই মা–কে বাজি কারখানায় কাজে করতে হয়েছিল। কারণ মায়ের একশো দিনের কাজ করে টাকা পাননি। আবার কখনও কাজও পাননি।’‌

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ একশো দিনের কাজের টাকা বকেয়া থাকা গ্রামীণ অর্থনীতিতে বড় প্রভাব ফেলেছে। এগরা–১ ব্লক প্রশাসন এবং সাহাড়া গ্রাম পঞ্চায়েত সূত্রে খবর, ২০২১–২২ আর্থিক বছরে উপকরণ কেনা বাবদ ৫২ লক্ষ ৪ হাজার টাকা এবং অদক্ষ শ্রমিকদের মজুরি বাবদ ৩ লক্ষ ৭৬ হাজার টাকা বকেয়া আছে। আর ২০২২–২৩ আর্থিক বছরে বকেয়ার পরিমাণ ২ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা। এই পঞ্চায়েত অবশ্য তৃণমূল কংগ্রেসের নয়, বিজেপির। এই বিষয়ে বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলার অন্যতম সাধারণ সম্পাদক মমতা মাইতি বলেন, ‘ভুয়ো মাস্টার রোল তৈরি করে পঞ্চায়েতগুলিতে টাকা লুট করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাই কেন্দ্র বাধ্য হয়েছে টাকা আটকাতে।’ আর এগরার বিধায়ক তথা কাঁথি সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল সভাপতি তরুণ মাইতি পাল্টা অভিযোগ করেন, ‘একুশের বিধানসভা নির্বাচনে জিততে না পেরে বিজেপি রাজ্যের মানুষকে ভাতে মারার চেষ্টা করছে। একশো দিনের কাজে টাকা না পেয়ে বিকল্প রোজগারের খোঁজে জীবনের ঝুঁকিও নিচ্ছেন।’

বাংলার মুখ খবর

Latest News

‘‌সরি টু সে, আমায় তো ভোটটা করতে হবে’‌, কল্যাণকে এবার কড়া জবাব দিলেন কাঞ্চন ১৫ বছরের অপেক্ষা শেষ, ৮০০ জনকে প্রাথমিকে নিয়োগ দিতে নির্দেশ আদালতের Pakistan বনাম New Zealand ম্যাচ শুরু হতে চলেছে, পাল্লা ভারি কোন দিকে? দ্বিতীয় কিপার হিসেবে লড়াই রাহুল-সঞ্জুর, ষষ্ঠ বোলারের দৌড়ে বিষ্ণোই-অক্ষর-আবেশ ‘আমার সঙ্গে একটা ছবি তুলবে কাঞ্চনদা?’ পরমব্রতর বাড়িতে দেখা হতেই আবদার অরিজিতের! ‘৪০ ঊর্ধ্বে মহিলাদের প্রতি মানুষ কঠোর’, কাজ কমিয়ে দেওয়া নিয়েও মুখ খুললেন কালকি ম্যালেরিয়ার ঝুঁকি বাড়ে এই কারণেই! বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মতো এড়িয়ে চলুন এখন থেকেই লোকসভা ভোটের দ্বিতীয় দফার আসনগুলিতে ২০১৯-এর চেয়ে ভাল ফলের আশায় জেডিইউ 'Don't spread nonsense', মিথ্যে উদ্ধৃতির অভিযোগে এক ওয়েবসাইটকে ধুয়ে দিলেন রায়াডু টসে জিতল Royal Challengers Bengaluru , প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিল|

Latest IPL News

'Don't spread nonsense', মিথ্যে উদ্ধৃতির অভিযোগে এক ওয়েবসাইটকে ধুয়ে দিলেন রায়াডু তুমি কত টাকা চাও, জিজ্ঞেস করেছিল স্কাই স্পোর্টস, উত্তর শুনে পালিয়েছে, বললেন বীরু কোন যোগ্যতায় IPL-এর কমেন্ট্রি করেন প্রেরণা? ট্রোল হতেই জবাব এল, 'লোকের ফেটেছে' DC vs GT: রোহিতের কথায় সায় অক্ষরের,ইমপ্যাক্ট প্লেয়ারের নিয়মে বিপাকে অলরাউন্ডাররা পরীক্ষিত সৈনিকেই ভরসা, বিশ্বকাপে জায়গা হচ্ছে না রিয়ান, মায়াঙ্কদের প্রথমে ভেবেছিলাম ১৮০ করব, তারপর পন্ত বলল… ঋষভের আত্মবিশ্বাস দেখে অবাক আমরে বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাট করার পরেও ক্ষমা চাইলেন পন্ত, কিন্তু কার কাছে, কেন? -ভিডিয়ো ‘আমি অনুরোধ করেছিলাম,তবে ও শোনেনি’,উথাপ্পার কোন ব্যবহার এখনও মনে রয়েছে কুম্বলের? ফুটবল খেলে,বাচ্চাদের সঙ্গে কেক কেটে জন্মদিনের সপ্তাহের শুরু সচিন তেন্ডুলকরের MI-এ বেশি দিন খেললে ব্রেন ফেটে যাবে- বিস্ফোরক রায়ডু

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.