বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শীতের আগমনিতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ঘন কুয়াশা, বৃষ্টি হতে পারে দার্জিলিং–কালিম্পংয়ে
শীতের সকালে ঘন কুয়াশা। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)
শীতের সকালে ঘন কুয়াশা। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

শীতের আগমনিতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে ঘন কুয়াশা, বৃষ্টি হতে পারে দার্জিলিং–কালিম্পংয়ে

  • বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ রয়েছে ৯৮ শতাংশ। বেলা বাড়ার সঙ্গে বাড়বে অস্বস্তিও। যদিও আবহাওয়া দফতরের দাবি, সকালের দিকে দক্ষিণবঙ্গে কুয়াশার দাপট থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সরে যাবে কুয়াশা।

সকাল থেকেই ঘন কুয়াশা। আর তা কাটতে গড়িয়ে যাচ্ছে বেলা। সারাদিনে মোটের ওপর রোদের দেখা মিলছে না। আর এই পরস্থিতিতে ঢুকবে ঢুকবে করেও রাজ্যে দেখা মিলছে না শীতের। পরপর ৬ দিন রাজ্য জুড়ে কুয়াশার দাপটের জেরেই বেড়ে চলেছে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। বৃহস্পতিবার তাপমাত্রা ছিল ১৭.‌৮ ডিগ্রি। শুক্রবার তা থাকবে ১৮.‌৪ ডিদ্রির আশপাশে। এভাবে তাপমাত্রা বাড়তে থাকলে ডিসেম্বরেও মিলবে না শীতের আমেজ।

এদিকে, ঘন কুয়াশার সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে উত্তরবঙ্গে। হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দার্জিলিং ও কালিম্পংয়ে। শুক্রবার সকালে কলকাতায় কিছু এলাকায় ছিটেফোট বৃষ্টি হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গে কুয়াশার জেরে দৃশ্যমানতা নেমে এসেছে ১০০ মিটারে। বাংলা সংলগ্ন বিহার, ওডিশা ও ঝাড়খণ্ডেও একচেটিয়া রাজত্ব করে রাখবে ঘন কুয়াশা। একইসঙ্গে সে সব রাজ্যেও দেখা মিলছে না শীতের।

বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ রয়েছে ৯৮ শতাংশ। বেলা বাড়ার সঙ্গে বাড়বে অস্বস্তিও। যদিও আবহাওয়া দফতরের দাবি, সকালের দিকে দক্ষিণবঙ্গে কুয়াশার দাপট থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সরে যাবে কুয়াশা। আগামীকাল, শনিবারও একই আবহাওয়া থাকতে চলেছে দক্ষিণবঙ্গে। তবে কিছুটা বাড়তে পারে দৃষ্যমানতা। জানা গিয়েছে, কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি, নদিয়া, মুর্শিদাবাদে আগামীকাল কুয়াশার জন্য দৃশ্যমানতা থাকবে ২০০ মিটারের কাছাকাছি।

বন্ধ করুন