বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কালনা কলেজ: রবীন্দ্র জয়ন্তীর অনুষ্ঠানেও TMCP'র মারপিট, বেরিয়ে গেলেন বিধায়ক
তুমুল মারপিট কালনা কলেজে।

কালনা কলেজ: রবীন্দ্র জয়ন্তীর অনুষ্ঠানেও TMCP'র মারপিট, বেরিয়ে গেলেন বিধায়ক

  • এক টিএমসিপি নেতার দাবি, আমাদের রবীন্দ্রজয়ন্তীতে আমন্ত্রণ করা হয়নি। সেকারণে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছিলাম।বহিরাগত লোকজন বেধড়ক মারধর করেছে আমাদের। বিধায়ক ওদের নিয়ে এসেছিল। এদিকে গোটা ঘটনায় দৃশ্যতই বিরক্ত বিধায়ক।

রবীন্দ্র জয়ন্তীর অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেও তুমুল গন্ডগোল কালনা কলেজে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ। বাঁশ, লাঠি নিয়ে একে অপরের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। মাথা ফাটল এক ছাত্রের। কলেজ চত্বরে একেবারে রক্তারক্তি কাণ্ড হয়ে যায়। এদিকে কালনার বিধায়ক দেবপ্রসাদ বাগ এলাকায় গেলে তাঁকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে টিএমসিপির একাংশ। তাঁর সামনে গো ব্যাক স্লোগান দেওয়া হয়।  শাসকদলের বিধায়ককে ঘিরেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এই বিক্ষোভকে ঘিরে ইতিমধ্যেই নানা প্রশ্ন উঠছে। কার্যত অপমানিত হয়ে এদিন কিছুক্ষণের মধ্যেই কলেজ ছেড়ে বেরিয়ে যান তৃণমূল বিধায়ক। রবীন্দ্র মূর্তি উন্মোচনেরও কথা ছিল এদিন।

এদিকে কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি,  রবীন্দ্র জয়ন্তীর অনুষ্ঠান ছিল। দুটি ডিপার্টমেন্টের অনুষ্ঠান ছিল। একেবারে ঘরোয়া অনুষ্ঠান। সেখানে কলেজ পরিচালন সমিতির প্রতিনিধিদেরও ডাকা হয়েছিল। এদিকে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ বলা শুরু করে তাদের কেন আমন্ত্রণ করা হয়নি। তাদেরকে বাদ দেওয়া হয়নি। এটা নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়ে যায়। আমরা ভিড় কম রাখার জন্য এটা করেছিলাম। তারপরে যেটা হয়েছে সেটা অনভিপ্রেত। দুটো দলে ভাগ হয়ে মারপিট করেছে। এই আশঙ্কা থেকেই প্রোগ্রামটা ছোট করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু বিধায়ক আগেই বেরিয়ে চলে যান।

এক টিএমসিপি নেতার দাবি, আমাদের রবীন্দ্রজয়ন্তীতে আমন্ত্রণ করা হয়নি। সেকারণে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছিলাম।বহিরাগত লোকজন বেধড়ক মারধর করেছে আমাদের। বিধায়ক ওদের নিয়ে এসেছিল। এদিকে গোটা ঘটনায় দৃশ্যতই বিরক্ত বিধায়ক।

বন্ধ করুন