বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Diamond Harbour: পেট্রোল পাম্প থেকে উদ্ধার পুলিসকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ, চাঞ্চল্য ডায়মন্ড হারবারে

Diamond Harbour: পেট্রোল পাম্প থেকে উদ্ধার পুলিসকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ, চাঞ্চল্য ডায়মন্ড হারবারে

ঘটনাস্থলে পুলিশ। নিজস্ব ছবি।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পুলিশের পোশাক পরা অবস্থাতেই সমীর দাসের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। এরপর তারা পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সমীর দাসের মৃতদেহ উদ্ধার করে। 

পেট্রোল পাম্পে পুলিশকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ডায়মন্ড হারবার থানার বাটা পেট্রল পাম্প থেকে ওই পুলিশকর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে মৃত পুলিশকর্মীর নাম সমীর দাস (৫৪)। তিনি ডায়মন্ড হারবার থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর ছিলেন। পেট্রোল পাম্পে হঠাৎ ওই পুলিশকর্মীর রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে রহস্য দানা বেঁধেছে। কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে তা বুঝে উঠতে পারছে না পুলিশ। ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পুলিশের পোশাক পরা অবস্থাতেই সমীর দাসের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। এরপর তারা পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সমীর দাসের মৃতদেহ উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান, পথ দুর্ঘটনার ফলে সমীর দাসের মৃত্যু হতে পারে। কিন্তু, সেই অনুমান যে নির্ভুল তা জোর দিয়ে বলতে পারছেন না পুলিশের আধিকারিকরা। ফলে তার মৃত্যুর পিছনে কী রহস্য রয়েছে তা ময়নাতদন্তের পর অনেকটাই স্পষ্ট হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তার পরেই তার দেহ তুলে দেওয়া হবে পরিবারের হাতে।

সাধারণত এ ধরনের ঘটনায় সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। তবে পেট্রোল পাম্পে কোনও সিসিটিভি ফুটেজ নেই বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। তবে পেট্রোল পাম্প থেকে অনেকটাই দূরে জাতীয় সড়কের পাশে সিসিটিভি রয়েছে। সেই ফুটেজ খতিয়ে দেখবে পুলিশ। এদিকে, ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ডায়মন্ড হারবার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জোনাল) পলাশ চন্দ্র ঢালী। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর হাওড়ার বাসিন্দা। ডায়মন্ড হারবার থানায় ডিউটি সেরে তিনি কোয়ার্টারে ফিরছিলেন সেই সময় কোনওভাবে তার মৃত্যু হয়েছে। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ।

বন্ধ করুন