বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পরিষেবা শুরু হলেও এখনই চলবে না ১০০% লোকাল ট্রেন
পরিষেবা শুরু হলেও এখনই ১০০ শতাংশ লোকাল ট্রেন নয় (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
পরিষেবা শুরু হলেও এখনই ১০০ শতাংশ লোকাল ট্রেন নয় (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

পরিষেবা শুরু হলেও এখনই চলবে না ১০০% লোকাল ট্রেন

  • লোকাল ট্রেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের বিষয়টি নির্ধারিত হয়েছে।

রাজ্য-রেলের বৈঠকে লোকাল ট্রেন চালুর আশ্বাস মিলেছে। কিন্তু প্রাথমিকভাবে ১০-১৫ শতাংশের বেশি ট্রেন চলবে না বলে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন রেলকর্তারা। পরে পরিস্থিতি অনুধান করে ২৫ শতাংশ ট্রেন চালানো হতে পারে জানানো হয়েছে।

লোকাল ট্রেন পরিষেবা নিয়ে যাত্রী বিক্ষোভের মধ্যেই সোমবার নবান্নে পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব রেলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন রাজ্য সরকারের উচ্চপদস্থ কর্তারা। মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বরাষ্ট্রসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীরাও বৈঠকে ছিলেন। ঘণ্টাখানেকের বৈঠক শেষে রেলের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়, নিশ্চিতভাবে রাজ্যের সব সেকশনে লোকাল ট্রেন পরিষেবা শুরু হবে। তবে কীভাবে ট্রেন চালানো হবে, কীভাবে যাবতীয় করোনাভাইরাস বিধি পালন করা হবে, সে বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) সে বিষয়ে আবারও বৈঠকে বসবে রাজ্য ও রেলের কর্তারা।

তবে রেলের তরফে জানানো হয়েছে, প্রাথমিকভাবে ১০-১৫ শতাংশ ট্রেন চলবে। কয়েকদিন রেল পরিষেবার পর তা বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করা হবে। লকডাউনের আগে পর্যন্ত শিয়ালদহ শাখায় সপ্তাহের ছ'দিন (রবিবার বাদে) ৯১৫ টি লোকাল ট্রেন চলত। আর হাওড়া শাখায় দৈনিক ৪০৭ টি (রবিবার ছাড়া)  লোকাল ট্রেনের পরিষেবা মিলত। তবে কতগুলি ট্রেন গ্যালপিং হবে, কোন কোন স্টেশনে থামবে এবং পূর্ণাঙ্গ সূচি কী হবে, তা নিয়ে বৃহস্পতিবার আলোচনা করা হবে। 

একইসঙ্গে লোকাল ট্রেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের বিষয়টি নির্ধারিত হয়েছে। এমনিতে একটি ট্রেনে ১,২০০ জন যাত্রীর বসার জায়গা থাকে। এবার সেই সংখ্যাটা ৬০০-এর মধ্যে বেঁধে রাখার বিষয়ে স্থির হয়েছে। 

বন্ধ করুন