বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শীতের মুখে বন্ধ হয়ে গেল আরও এক জুটমিল, কর্মহীন ৪,৫০০ শ্রমিক
শীতের মুখে বন্ধ হয়ে গেল আরও এক জুটমিল, কর্মহীন ৪,৫০০ শ্রমিক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য ফেসবুক)
শীতের মুখে বন্ধ হয়ে গেল আরও এক জুটমিল, কর্মহীন ৪,৫০০ শ্রমিক। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য ফেসবুক)

শীতের মুখে বন্ধ হয়ে গেল আরও এক জুটমিল, কর্মহীন ৪,৫০০ শ্রমিক

  • বন্ধ হয়ে গেল আরও একটি চটকল। তার জেরে কর্মহীন হলেন প্রায় ৪,৫০০ জন শ্রমিক।

একে তো করোনাভাইরাস আবহ। তার উপর লকডাউনের জেরে বহু মানুষ কর্মহীন। আর সবেমাত্র শীত পড়েছে, তারমধ্যেই এল বড় খারাপ খবর। বন্ধ হয়ে গেল ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের আরও একটি চটকল। তার জেরে কর্মহীন হয়ে পড়লেন প্রায় ৪,৫০০ শ্রমিক। বছর ঘুরলেই রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। সুতরাং এই পরিস্থিতি ভোটবাক্সে পড়বে বলে অনেকে মনে করছেন।

স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার রাতে হঠাৎ বন্ধ করে দেওয়া হয় ভাটপাড়ার রিলায়েন্স জুটমিল। অভিযোগ, রাতের শিফটের শ্রমিকদের মিলে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সারাদিন শ্রমিক–মালিক পক্ষের মধ্যে গোলমাল চলে। চটকল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, উৎপাদন কম হওয়ার কারণে মিল বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে। তবে শ্রমিকদের অভিযোগ, মালিকপক্ষ জোর করে দ্বিগুণ কাজ করিয়ে নিতে চাইছে।

তারপর সোমবার সকালে ক্ষুব্ধ শ্রমিকরা মিলের সামনে ঘোষপাড়া রোড অবরোধ করেন। পুলিশ সকলকে বুঝিয়ে অবরোধ তোলে। গোলমালের আশঙ্কায় কারখানার আশেপাশে বিশাল পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

কয়েকদিন আগে শ্যামনগরের উইভারলি জুটমিলও বন্ধ করে দেওয়া হয়। কাজ হারান প্রায় ২,৫০০ জন। নোটিসে জানানো হয়, কাঁচা পাটের অভাবে আপাতত চটকল বন্ধ রাখা হচ্ছে। সবমিলিয়ে গত দু’সপ্তাহে ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে চারটি চটকল বন্ধ হল। এই বিষয়ে এআইইউটিইউসি’র রাজ্য সম্পাদক অশোক দাসের দাবি, রিলাযেন্স জুট মিল পরিকল্পিতভাবেই বন্ধ করে শ্রমিকদের কর্মহীন করা হয়েছে। অবিলম্বে কারখানা খোলার ব্যবস্থা করতে হবে।

বন্ধ করুন