বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মাটি চাপা পড়ে দুই শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু, রেলের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ
রেল প্রকল্পের কাজ চলাকালীন দুর্ঘটনা।

মাটি চাপা পড়ে দুই শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু, রেলের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ

  • রেল প্রকল্পের কাজ চলাকালীন এমন ঘটনা কী করে ঘটল?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এমনকী গাফিলতির অভিযোগ পর্যন্ত ওঠে।

মাটি চাপা পড়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠল। সেবক–রংপো রেল প্রকল্পের কাজ চলাকালীন এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তখন রেল প্রকল্পের কাজ চলছিল। সেই কাজ চলাকালীন কালিম্পংয়ের কালিখোলায় মাটি চাপা পড়ে মৃত্যু হয় দুই শ্রমিকের। রেল প্রকল্পের কাজ চলাকালীন এমন ঘটনা কী করে ঘটল?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এমনকী গাফিলতির অভিযোগ পর্যন্ত ওঠে।

পুলিশ সূত্রে খবর, এই দুই মৃত শ্রমিকের নাম সন্তোষ রায় (‌২৫)‌ এবং কারু ওঁরাও (‌২৭)। তাঁরা এই রেল প্রকল্পের কাজে যুক্ত ছিলেন। এই দু’‌জন শ্রমিকই ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা। মাটি চাপা পড়ে মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। শ্রমিকের দেহ দুটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।‌ এই দুই শ্রমিক মাটি চাপা পড়ে মারা গিয়েছে নাকি মাটি চাপা দিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

রেল সূত্রে খবর, রবিবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। কালিখোলায় সেতু নির্মাণ করতে মাটি কাটার কাজ করছিলেন তাঁরা। তখন খাদে নামেন সন্তোষ রায় এবং কারু ওঁরাও। হঠাৎই উপর থেকে মাটি চাপা পড়ে যান তাঁরা। অন্যান্য শ্রমিকরা ওই দুজনকে উদ্ধার করলেও বাঁচানো যায়নি। তাঁদের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এই বিষয়ে জেলাশাসক আর বিমলা বলেন, ‘‌দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। মাটি চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান। রেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।’‌ সেবক থেকে রংপো রেলপথ নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছিল ২০২০ সালে। গত ১৮ জুন টানেল নির্মাণের সময় নরেশ সোরেন ও সালখু মুর্মু নামে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়। এবার আবার দুই শ্রমিকের মৃত্যু হল।

বন্ধ করুন