বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'TRP-র লোভে নিজের অসুস্থ মাকেও ছাড়ছেন না', ‘কিউট’ ভিডিয়োর জন্য কটাক্ষ সায়নীকে
সায়নীর মা এবং সায়নী (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
সায়নীর মা এবং সায়নী (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

'TRP-র লোভে নিজের অসুস্থ মাকেও ছাড়ছেন না', ‘কিউট’ ভিডিয়োর জন্য কটাক্ষ সায়নীকে

  • ভিডিয়োর ক্যাপশনে সায়নী লেখেন, ‘আমরা মিষ্টি খাব না, খাব না মিষ্টি আমরা?'

হাসপাতালে ভরতি আছেন মা। তাঁর ছোট্ট ভিডিয়ো করে সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করেছিলেন যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সায়নী ঘোষ। তারপরই তৃণমূলনেত্রীর দিকে ধেয়ে এল কটাক্ষ। এক নেটিজেনের কটাক্ষ, ‘টিআরপির লোভে নিজের অসুস্থ মাকেও দেখাতে ছাড়ছেন না।’

রবিবার সকালে ফেসবুকে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন সায়নী।  সঙ্গে লেখেন, ‘আমরা মিষ্টি খাব না, খাব না মিষ্টি আমরা? পুনশ্চ : আপনি সত্যি খুব কিউট!!’ তাতে সায়নীর মা'কে বলতে শোনা যায়, ‘আর খাব না। নিজের ক্ষতি আর করব না।’ পালটা সায়নী বলেন, 'মিষ্টি খাবে না তুমি?' তাতে মাথা নাড়েন তৃণমূল নেত্রীর মা। 

তারইমধ্যে সায়নী বলে যেতে থাকেন, ‘বাসি খাবার খাওয়া যাবে না। ডাক্তার বলেছেন যে একদিনের বাসি খাবার মানেও বিষ।’ একেবারে বাধ্য মেয়ের মতো সায়নী মা বলেন, ‘না, আর খাব না। আর রাখব না। দরকার হলে ফেলে দেব। আমি তো প্রচুর মিষ্টি খাই। চায়ে চিনি খাওয়াও বন্ধ হয়ে গেল। আমি চেষ্টা করব যতটা পারি।’ তারপর কিছুটা ছাড় দেন সায়নী। বলেন, ‘মাঝেমধ্যে একটু-আধটু খেতে পার। কিন্তু রাতে উঠে-উঠে ওই মিষ্টি খাওয়া (চলবে না)'। মেয়ের কড়া নিয়ম শুনে সায়নীর মা বলেন, ‘না, না, আর নয়।’

সেই ভিডিয়ো পোস্টের পরই সায়নীর মায়ের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন নেটিজেনরা। একজন বলেন, 'কাকিমা খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠ। আর দিদিরা যা বলছে, এখন শুনে নাও। তারপর বাড়িতে এসে...।' অপরজন বলেন, 'তুমি সুস্থ থাক ভগবানের কাছে কামনা করি। আর সত্যিই তুমি খুব সুন্দর কাকিমা।' এক ব্যক্তি বলেন, 'তাই বলে এভাবে বললেন? একটু হয়তো মিষ্টি খেয়েছেন রাতের বেলায়.. এভাবে মানে ভিডিয়ো করে সবার সামনে। আপনার মা সত্যিই খুব মিষ্টি, ভালো লাগে। ওঁনাকে আমি প্রণাম জানাই। শীঘ্রই ওঁর সুস্থতা কামনা করি। ভালো থাকবেন।' সেই আরোগ্য কামনার মধ্যে একজন বলেন, ‘টিআরপির লোভে নিজের অসুস্থ মাকেও দেখাতে ছাড়ছেন না।’

বন্ধ করুন