BENGAL : পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫৮। এমনটাই জানাল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১২৪ জন। মৃত ২২। নয়া কেস বৃদ্ধিতে শতাংশের হিসাবে দেশের মধ্যে অন্যতম শীর্ষ স্থানে বাংলা। তবে তার পরেও অর্থনীতিকে সচল রাখার জন্য সোমবার থেকে অনেকাংশে লকডাউন শিথিল করা হচ্ছে রাজ্যে।

করোনা থাকা অবস্থায় এই ২২জন ছাড়াও আরও ৩৯জন মারা গিয়েছেন। কিন্তু ডেথ অডিট কমিটি বলে যে এরা কো-মর্বিডিটিতে মারা গিয়েছে। এদের মৃত্যু করোনায় নয়। এই নিয়ে বিতর্কও হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী যদিও বুধবার বলেন তিনি ডেথ অডিট কমিটি বানাননি। কে আছে তাও জানেন না!

এই মুহূর্তে কলকাতা ও সংলগ্ন হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা নিয়েই সবচেয়ে বেশি চিন্তিত রাজ্য সরকার। মোট কেসের ৮৮ শতাংশ এই স্থানগুলি থেকে রিপোর্ট হচ্ছে। এখানে যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা মুস্কিল, তাও কার্যত মেনে নিয়েছে রাজ্য। টিকিয়াপাড়া ঘটনায় বেআব্রু হয় গিয়েছে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার পরিস্থিতি বলে দাবি বিরোধীদের। যদিও এখনও পর্যন্তু পুলিশ নিগ্রহের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ১৪ জনকে।

এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের তালিকায় দেশের মধ্যে দশম স্থানে আছে পশ্চিমবঙ্গ। আক্রান্ত ও মৃত উভয়েই পয়লা স্থান অধিকার করেছে মহারাষ্ট্র। দ্বিতীয় স্থানে প্রতিবেশী রাজ্য গুজরাত।

দেশের করোনা ম্যাপ
দেশের করোনা ম্যাপ

আগামী তেসরা মে অবধি চলবে লকডাউন। তারপর কী হবে, সেটা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ইঙ্গিত করেছে যে সব স্থানে করোনা নেই, সেখানে অনেকটাই শিথিল করা হবে কড়াকড়ি।


বন্ধ করুন