বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Calcutta High court: কালাজাদুর অভিযোগে গ্রাম ছাড়া বৃদ্ধ দম্পতিকে ফেরানোর নির্দেশ হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি (HT_PRINT)

Calcutta High court: কালাজাদুর অভিযোগে গ্রাম ছাড়া বৃদ্ধ দম্পতিকে ফেরানোর নির্দেশ হাইকোর্টের

  • এরপর আলপনা নাতবৌকে একজন তান্ত্রিকের কাছে নিয়ে যায়। সেই তান্ত্রিক নিদান দিয়েছিলেন, ৩ শিশুকে হত্যা করলে তবেই তিনি অন্তঃসত্ত্ব হতে পারবেন। অভিযোগ, তান্ত্রিকের কালা জাদু যাতে কাজ করে তার জন্য প্রতিবেশীদের শিশুকে হত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন আলপনা। শেষে তিনি এক শিশুকে হত্যাও করেছিলেন।

কালাজাদুর অভিযোগ কাউকে গ্রাম ছাড়া করা যেতে পারে না। বাসস্থানে বাঁচার অধিকার দিতে হবে। একটি মামলায় এমনই পর্যবেক্ষণ করে বৃদ্ধ দম্পতিকে ঘরে ফেরানোর নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আদালতের আরও পর্যবেক্ষণ, সে ক্ষেত্রে প্রয়োজন হলে আইন অপরাধীদের শাস্তি দেবে। তবে কাউকে গ্রামে ঢুকতে দেওয়া যাবে না এই দাবি মানা যায় না।

আরও পড়ুন: বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের রায়ে ১৩বছর পর শিক্ষকের হাতে নিয়োগপত্র,১০ লাখ টাকা

মামলার বয়ান অনুযায়ী, গ্রামে ফিরতে চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন উত্তর ২৪ পরগনা স্বরূপনগরের কাবিলপুরের বাসিন্দা নিত্য ঘোষ এবং তার স্ত্রী আলপনা ঘোষ। তাদের বিরুদ্ধে শিশুকে খুনের অভিযোগ রয়েছে। জানা গিয়েছে, নিত্য ঘোষের নাতবৌয়ের যমজ সন্তান হয়েছিল। কিন্তু কিন্তু জন্মের পরে সন্তান মারা যায়। এরপর আলপনা নাতবৌকে একজন তান্ত্রিকের কাছে নিয়ে যায়। সেই তান্ত্রিক নিদান দিয়েছিলেন, ৩ শিশুকে হত্যা করলে তবেই তিনি অন্তঃসত্ত্ব হতে পারবেন। অভিযোগ, তান্ত্রিকের কালা জাদু যাতে কাজ করে তার জন্য প্রতিবেশীদের শিশুকে হত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন আলপনা। শেষে তিনি এক শিশুকে হত্যাও করেছিলেন। ঘটনাটি ঘটেছিল প্রায় চার বছর আগে।

এই ঘটনার পরে গ্রামে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। তাদের মারধর করে গ্রামবাসীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। তারপরেই ওই দম্পতিকে ঘরছাড়া করে গ্রামবাসীরা। তবে এখন আবার তারা গ্রামে ফিরতে চেয়ে সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। দম্পতির সেই মামলায় বিচারপতি রাজশেখর মান্থা নির্দেশ দিয়েছেন পর্যাপ্ত পুলিশি নিরাপত্তা দিয়ে ওই দম্পতিকে ঘরে ফেরাতে হবে। বিচারপতি জানান, ইতিমধ্যেই তারা জেল খেটেছে। প্রয়োজন হলে আদালত তাদের আরও শাস্তি দেবে। তবে গ্রামছাড়া করা যাবে না।

বন্ধ করুন